You are currently viewing ভোটার আইডি কার্ড সম্পর্কিত প্রশ্ন ও উত্তর | Voter ID Card Related Question and Answer

ভোটার আইডি কার্ড সম্পর্কিত প্রশ্ন ও উত্তর | Voter ID Card Related Question and Answer

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন ভোটার আইডি কার্ড সম্পর্কিত প্রশ্ন ও উত্তর আমাদের জানা প্রয়োজন। কারণ অনেকের জাতীয় পরিচয়পত্র ভোটার আইডি কার্ড নেই এবং নতুন ভোটার হতে চাচ্ছেন আর নতুন ভোটার হওয়ার ক্ষেত্রে নিচের এন আইডি কার্ড সম্পর্কিত প্রশ্নের উত্তর জানা অনেক জরুরী।

আর যারা ভোটার বর্তমানে আছেন যদি আপনার ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন বা কোন কিছু পরিবর্তন করতে যাচ্ছেন আপনার জন্যও নিচে দেওয়া প্রশ্ন গুলোর উত্তর জানা প্রয়োজন।

ভোটার আইডি কার্ড সম্পর্কিত সাধারণ জিজ্ঞাসা।

ভোটার আইডি কার্ড

১। প্রশ্নঃ আমি যথা সময়ে ভোটার হিসেবে ভোটার আইডি কার্ডের জন্য রেজিস্ট্রেশন করতে পারিনি। এখন কি আমি করতে পারবো?

উত্তরঃ এর উত্তর হল আপনি যে কোন সময়ে নতুন ভোটার আইডি কার্ডের রেজিস্ট্রেশনের জন্য অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন।

২। প্রশ্নঃ আমি বর্তমানে বিদেশে অবস্থানের কারণে ভোটার রেজিস্ট্রেশন করতে পারিনি, এখন আমি বিদেশ থেকে কিভাবে করতে পারবো?

উত্তরঃ বিদেশি এবং দেশী সবার জন্য আবেদন করার প্রসেসিং টি সমান আপনি যে কোন সময়ে ভোটার আইডি কার্ডের রেজিস্ট্রেশনের জন্য অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন এবং অবশ্যই আপনি একটি অপশন দেখতে পাবেন আবেদন করার সময় বিদেশীদের জন্য কি কি প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দিতে হবে।

৩। প্রশ্নঃ আমি ভোটার আইডি কার্ডের জন্য ২০০৭/২০০৮ অথবা ২০০৯/২০১০ সালে রেজিস্ট্রেশন করেছি কিন্তু আমি সেই সময় এন আইডি কার্ড গ্রহণ করিনি। আমি এখন কিভাবে আমার আইডি কার্ড পেতে পারি?

উত্তরঃ আপনি আপনার উপজেলা/থানা নির্বাচন অফিস থেকে ভোটার আইডি কার্ড সংগ্রহ করতে পারবেন। তবে যদি সেখানেও না পাওয়া যায় তাহলে এ ক্ষেত্রে আপনি অনলাইনে রিইস্যু করার জন্য আবেদন করতে পারবেন। যখন আপনার আবেদন অনুমোদিত হবে তারপর আপনার মোবাইলে এসএমএস পাঠানো হবে যে আপনার আইডি কার্ড অনলাইনে এসেগেছে। এরপর আপনি এন আইডি কার্ড এর অনলাইন কপি কপি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

৪। প্রশ্নঃ ভোটার আইডি কার্ডের নামের সাথে বিভিন্ন খেতাব, পেশা, ধর্মীয় উপাধি, পদবী ইত্যাদি যুক্ত করা যাবে কিনা?

উত্তরঃ ভোটার আইডি কার্ডের তালিকার ডাটাবেজে শুধুমাত্র নাম সংযুক্ত করা হয়, কোন উপাধি বা অর্জিত পদবী তাতে সংযুক্ত করার অবকাশ নাই।

৫। প্রশ্নঃ কোথায় থেকে আইডি কার্ড সংগ্রহ করা যাবে?

উত্তরঃ আপনি অনলাইন থেকে ডাউনলোড করতে পারবেন অথবা যে এলাকায় ভোটার রেজিস্ট্রেশন করেছেন সেই এলাকার উপজেলা/থানা নির্বাচন অফিস থেকে আইডি কার্ড সংগ্রহ করা যাবে।

৬। প্রশ্নঃ আমি এখন বিদেশে চলে যাব। আমার কার্ড কি অন্য কেউ উত্তোলন করতে পারবে?

উত্তরঃ না উওলন করতে পারবেন না। তবে অনলাইন থেকে ডাউনলোড করতে পারবেন।

৭। প্রশ্নঃ আমার ভোটার কার্ডে ইচ্ছাকৃত ভুল তথ্য দিলে কি হবে?

উত্তরঃ জেল বা জরিমানা অথবা উভয় দন্ডে দণ্ডিত হতে পারে।

৮। ভোটার আইডি কার্ড/জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর ১৩ আবার কারো ১৭ কেন?

উত্তরঃ ২০০৮ এর পরে যত আইডি কার্ড প্রিন্ট করা হচ্ছে বা পুণঃ তৈরি হচ্ছে সে সকল কার্ডের নম্বর ১৭ ডিজিট হয়ে থাকে।

৯। প্রশ্নঃ আমার বিভিন্ন দলিলে বা কাগজপত্রে আমার বিভিন্ন বয়স/নাম আছে। কোনটা ভোটার রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে?

উত্তরঃ আপনার এসএসসি অথবা এইচএসসি পরীক্ষার সনদে উল্লেখিত বয়স ও নাম। এবং ভবিষ্যতে ৫ম/৮ম সমাপনী পরীক্ষার সনদ ও গ্রহণযোগ্য হবে। লেখাপড়া না জানা থাকলে জন্ম সনদ, এবং পাসপোর্ট, । ড্রাইভিং লাইসেন্স দিয়ে ও আবেদন করা যাবে।

১০। প্রশ্নঃ fingerprint বা আঙ্গুলের ছাপ দিয়ে কি ডুপ্লিকেট এন্ট্রি সনাক্ত করা সম্ভব?

উত্তরঃ হ্যাঁ, অবশ্যই সনাক্ত করা সম্ভব।

১১। প্রশ্নঃ একজন ব্যক্তির ক্ষেত্রে কি একাধিক নামে ও বয়সে একাধিক এন আইডি কার্ড পাওয়া সম্ভব?

উত্তরঃ না। একজন একটি মাত্র কার্ড করতে পারবেন। আপনার তথ্য গোপন করে একাধিক স্থানে ভোটার হলে কেন্দ্রীয় সার্ভারে আঙুলের ছাপ দ্বারা তা ধরা পড়বে এবং অবশ্যই তার বিরুদ্ধে মামলা হবে।

১২। প্রশ্নঃ আমি নতুন ভোটার হওয়ার ক্ষেত্রে কি কি কাগজপত্রাদি প্রয়োজন হবে?

উত্তরঃ আপনার জন্ম নিবন্ধন সনদ, এস.এস.সি বা এইচএসসি পরীক্ষা পাসের সনদ (যদি থাকে), আপনার ঠিকানা প্রমাণের জন্য কোন ইউটিলিটি বিলের কপি, নাগরিক সনদ, বাবা-মা এবং বিবাহিত হলে স্বামী/স্ত্রীর এনআইডি কার্ডের ফটোকপি, পাসপোর্ট, ড্রাইভিং লাইসেন্স, টিআইএন (TIN) নম্বর (যদি থাকে)।

১৩। প্রশ্নঃ আমার বয়স ১৮ বছরের কম এবং আমি খুব দরিদ্র। এখন আমি ১৮ বছরের উপরে বয়স দেখিয়ে একটি আইডি কার্ড পেলে গার্মেন্টেস ফ্যাক্টরিতে বা অন্য কোথাও চাকুরী পেতে পারি। মানবিক কারণে এই পরিস্থিতি বিবেচনা করা যায় কি?

উত্তরঃ না। আপনাকে ১৮ বছর বয়স পূর্ণ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। মানবিক বিবেচনার কোন সুযোগ নেই।

১৪। প্রশ্নঃ ভোটার আইডি কার্ডের জন্য আমি ভুলে দু’বার রেজিস্ট্রেশন করে ফেলেছি এখন কি করবো?

উত্তরঃ আপনি যত দ্রুত সম্ভব বিষয়টি আপনার জেলার নির্বাচন অফিসে লিখিতভাবে ক্ষমা প্রার্থনা জানান। এখন বর্তমানে Finger Print Matching কার্যক্রম চলছে। এবং অচিরেই সকল Duplicate Entry সনাক্ত করা হবে। উল্লেখ্য, যা শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

১৫। প্রশ্নঃ আমার এন আইডি কার্ড আছে কিন্তু ২০০৮ এর সংসদ নির্বাচনের সময় ভোটার তালিকায় আমার নাম ছিল না। এধরনের সমস্যা সমাধানের উপায় কি?

উত্তরঃ আপনি অবিলম্বে এনআইডি রেজিস্ট্রেশন উইং/উপজেলা/জেলা নির্বাচন অফিসে গিয়ে যোগাযোগ করুন।

১৬। প্রশ্নঃ আমার ভোটার কার্ড অন্যজনকে দিয়ে সংগ্রহ করতে পারবো কি?

উত্তরঃ সরাসরি সংগ্রহ করতে পারবেন এন আইডি কার্ড তবে অনলাইন থেকে ডাউনলোড করাতে পারবেন।

১৭। প্রশ্নঃ অনলাইনে আবেদন করার জন্য আপনারা বিভিন্ন ফর্মের কথা উল্লেখ করেছেন? এই ফরম গুলো কোথায় পাওয়া যাবে?

উত্তরঃ আপনি এখন সব আবেদন অনলাইনে খুব সহজে করতে পারবেন এবং আপনার আবেদনের ধরন অনুযায়ী প্রয়োজনীয় সব ফরম অনলাইনে রয়েছে আপনি সংগ্রহ করে নিতে পারবেন।

১৮। প্রশ্নঃ অনলাইন আবেদনের জন্য বা উপরের দেওয়া এই সমস্ত ফর্মের জন্য কি কোন মূল্য পরিশোধ করতে হবে?

উত্তরঃ ভোটার আইডি কার্ড সম্পর্কিত এই সব কিছু করার জন্য কোন ফি প্রয়োজন হয় না।

এই আর্টিকেলের ভোটার আইডি কার্ড বা জাতীয় পরিচয়পত্র সম্পর্কিত প্রশ্ন এবং উত্তর গুলো নেওয়া হয়েছে বাংলাদেশের জাতীয় পরিচয়পত্র সম্পর্কিত অফিসিয়াল ওয়েবসাইট services.nidw.gov.bd থেকে

নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম

আপনি যদি নতুন ভোটার হতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে অনলাইনে নতুন ভোটার হওয়ার জন্য আবেদন করতে হবে আর অনলাইনে আবেদনর কাজটি আপনি আপনার মোবাইলের মাধ্যমে করতে পারবেন কিভাবে ভোটার আইডি কার্ডের জন্য আবেদন করবেন কি কি প্রয়োজনীয় কাগজপত্র প্রয়োজন হয় এগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন এখানে

ভোটার আইডি কার্ড চেক করার নিয়ম

আপনি যদি নতুন ভোটার আইডি কার্ড করে থাকেন এবং আপনার এন আইডি কার্ড হাতে পান নি তাহলে আপনি আপনার ভোটার আইডি কার্ড অনলাইনে চেক করতে পারবেন যে আপনার আইডি কার্ড হয়েছে কিনা আর হয়ে গেলে আমাদের দেওয়া এই পোস্টটি সম্পূর্ণ ধাপসমূহ ফলো করে খুব অনলাইনে চেক করতে পারবেন এবং Voter ID Card Online Copy download ও করতে পারবেন। ভোটার আইডি কার্ড চেক এবং ডাউনলোড করার জন্য এখানে ভিজিট করুন

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করার নিয়ম

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করার জন্য অনলাইনে আবেদন করতে হয় কিভাবে ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করার জন্য আবেদন করবেন কি কি কাগজপত্র লাগবে সব কিছু জানতে ভিজিট করুন

ভোটার স্লিপ হারিয়ে গেলে কি করবেন।

ভোটার আইডি কার্ড এর নাম্বার অথবা ভোটার স্লিপ হারিয়ে গেলে যেভাবে খুঁজে বের করতে পারবেন জানতে ভিজিট করুন।

আমাদের এই পোস্টটি আপনাদের হেল্পফুল হলে প্লিজ আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে আমাদের সাথে থাকবেন।Facebook Page here.

Please Share this article

Leave a Reply