নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম | New Voter ID Card Registration Online

You are currently viewing নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম | New Voter ID Card Registration Online

নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম, সম্প্রতি ভোটার আইডি কার্ড নতুন আবেদন করার জন্য বিভিন্ন নতুন আপডেট এসেছে তার সাথে সাথে ভোটার আইডি কার্ডের ওয়েবসাইটও নতুন আপডেট হয়েছে তাই আজকের আমাদের এই পোস্টটিতে আপনাকে কমপ্লিটলী বুঝিয়ে দেওয়া হবে কিভাবে আপনি নিজে নিজে ঘরে বসে অনলাইনে নতুন ভোটার আইডি কার্ড এর জন্য আবেদন করবেন।

নতুন ভোটার আইডি কার্ড অনলাইনে আবেদন করার জন্য আপনাকে বাহিরে যেতে হবে না তার সাথে সাথে আপনি আপনার মোবাইলের মাধ্যমে ঘরে বসে অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। কোন লেপটপ বা কম্পিউটারের প্রয়োজন হবে না। New NID Card Registration করার জন্য।

তাহলে শুরু করা যাক কিভাবে আপনি আপনার মোবাইল থেকে নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম অনুসরন করে এখনি আবেদন করবেন আমাদের দেওয়া সকল ধাপ গুলো ভালো ভাবে ফলো করে সঠিকভাবে সকল ভোটার তথ্য দিবেন কারন পরবর্তীতে আপনি এটি পরিবর্তন করতে সমস্যা হবে। New Voter ID Card Registration online.

নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার ধাপসমূহ

নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার জন্য প্রথমে আপনাকে আপনার মোবাইলের যেকোন একটি ব্রাউজার ওপেন করে নিন এবং ব্রাউজারের গুগল সার্চ বারে লিখুন NID Card লেখে সার্চ করার পর প্রথমে services.nidw.gov.bd এই ওয়েবসাইটটি আসবে এটি হল বাংলাদেশের ভোটার আইডি কার্ড এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট, আপনি এই NID Card এর ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবেন তখন নিচের ছবির মত হোমপেজ আপনার সামনে আসবে।

নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম

এখানে দুটি ঘর দেখতে পারতেছেন একটি হল ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে রেজিস্ট্রেশন করার এবং একটি হল নতুন ভোটার আইডি কার্ড আবেদন করার জন্য আপনি লাল চিহ্নিত নতুন নিবন্ধনের জন্য আবেদন এই অপশনে ক্লিক করুন।

নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম দ্বিতীয় ধাপ

নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম

নতুন ভোটার আইডি কার্ড নিবন্ধন করার অপশনের মধ্যে ক্লিক করার পর আপনার সামনে উপরের পিকচারের মত একটি পেজ আসবে এই পেইজটিতে অ্যাকাউন্ট নিবন্ধন লেখা দেখতে পারতেছেন তারপর লেখা রয়েছে পুরো নাম ইংরেজিতে লিখতে, জন্ম তারিখ, এবং একটি কেপচর পূরণ করতে হবে আপনি, এখন আপনি আপনার নাম জন্ম নিবন্ধন এর মধ্যে যেভাবে দেওয়া রয়েছে ঠিক সেইভাবে দিবেন নতুবা অসুবিধা হবে আপনার সকল তথ্য আপনার জন্ম নিবন্ধন কার্ডের মধ্যে যেভাবে রয়েছে সেভাবে দিবেন ইংরেজি নাম দেওয়ার সময় সঠিকভাবে দিবেন আপনার সার্টিফিকেট এবং জন্ম নিবন্ধন এর সাথে মিল রেখে দিন এবং বহাল অপশনের মধ্যে ক্লিক করুন এবং পরবর্তী ধাপে যন।

নতুন ভোটার আইডি কার্ড রেজিস্ট্রেশন তৃতীয় ধাপ

নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম

যখন আপনি আপনার নাম ইংরেজিতে এবং জন্ম তারিখ লিখে বহাল অপশনে ক্লিক করার পর উপরের পিকচারের মত নতুন পেইজ আসবে আপনার সামনে এখানে দেখতে পারবেন মোবাইল নাম্বার এখানে আপনি যে নাম্বার সবসময় ব্যবহার করেন এই নাম্বার দিয়ে বার্তা পাঠান অপশনে ক্লিক করুন।

নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম

বার্তা পাঠানোর পর আপনার মোবাইল চেক করে দেখবেন কোড যাবে এই কোডটি এখানে দিন এবং বহাল লেখা অপশনে ক্লিক করুন। পরের ধাপ পড়ুন।

New Voter ID Card Apply চতুর্থ ধাপ

নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম

মোবাইল নাম্বার ভেরিফাই করার পর এখন আপনাকে নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার জন্য একাউন্ট সেটাপ করতে হবে তারমানে আপনি এখন ইউজারনেম পাসওয়ার্ড দিয়ে একাউন্ট কমপ্লিট করতে হবে এখন আপনি ভালো ভাবে একটি Strong পাসওয়ার্ড এবং পনুরায় পাসওয়ার্ড দিয়ে বহাল অপশনে ক্লিক করুন। পরের ধাপ পড়ুন।

New NID Card Apply পঞ্চম ধাপ

নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম

ইউজারনেম পাসওয়ার্ড দেওয়া শেষ হয়ে বহালে ক্লিক করার পর উপরের পিকচারের মত নতুন পেইজ আসবে এখানে দেখতে পারবেন বিস্তারিত প্রফাইল লেখা অপশনে ক্লিক করুন এবং নিচের ছবি গুলোর মত একটি পেজ আসবে এখানে আপনার ভোটার তথ্য সবকিছু দিতে হবে সঠিক ভাবে যেমন আপনার নাম পিতার নাম ভোটার তথ্য মায়ের নাম এবং ভোটার তথ্য, স্বামী থাকলে চাইলে দিতে পারেন। এই সবকিছু দিতে এডিট বলে একটি অপশন দেখতে পাবেন উপরে। একবার সবকিছু দেখে নিন।

ভোটার তথ্য চেক করার পর এখন আপনি এডিট করার জন্য একবার নিচের দেওয়া পিকচারের দিকে লক্ষ্য করুন।

নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম

এডিট এ ক্লিক করে প্রথমে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য সবকিছু দিবেন আপনার নাম বাংলা এবং ইংরেজী উভয়টি ভালো করে বারবার চেক করেন। পিতা মাতার নাম ইংরেজি এবং বাংলা উভয়টি সঠিকভাবে দিন নিচের পিকচারের দিকে লক্ষ্য করুন।

নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম

উপরের পিকচারের দিকে লক্ষ্য করলে দেখতে পাচ্ছেন ব্যক্তিগত তথ্য, অন্যান্য তথ্য, ঠিকানা, এই তিনটি আপনি ভালো ভাবে সঠিকভাবে পূরণ করে নিচে দেওয়া পরবর্তী পেইজে যাওয়ার জন্য ক্লিক করুন। এখন পরের ধাপ পড়ুন।

নতুন ভোটার আইডি কার্ড ষষ্ট ধাপ

নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম

আপনার ভোটার সকল তথ্য পিতা মাতার নাম এবং ভোটার তথ্য, অন্যান্য তথ্য, ঠিকানা সবকিছু সঠিকভাবে পূরণ করার পর পরের পেইজে এসে উপরের পিকচারের মত পেইজ আসবে আপনার সামনে, এখানে লেখা আছে এডিট, কাগজপত্র, নিশ্চিত করুন, আপনি এডিট করা শেষ ঠিক চিহ্ন হয়ে যাবে, আর কাগজপত্র এখানে প্রয়োজন হবে না জমা দিতে প্রয়োজন হবে তাই এখন পরবর্তী লেখা অপশনে ক্লিক করুন এবং নিচের ছবির প্রতি লক্ষ্য করুন।

নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম

এখন আপনি নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার জন্য সকল তথ্য পুনরায় একবার চেক করে সাবমিট অপশনে ক্লিক করুন। পরের ধাপ পড়ুন।

নতুন ভোটার আইডি কার্ড ফরম ডাউনলোড

নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম

ভোটার আইডি কার্ড সকল তথ্য সাবমিট করার পর উপরের দেওয়া পিকচারের মত পেইজ আসবে এবং এখানে আপনি ডাউনলোড করে একটি অপশন উপরে দেখতে পাচ্ছেন এটিতে ক্লিক করুন এবং নিচের ছবির প্রতি লক্ষ্য করুন।

নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম

এই ফরম ডাউনলোড হয়ে আসবে আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে এখন আপনি এই নতুন ভোটার আইডি কার্ড ফরম বাকি সব ভোটার আইডি কার্ড এর জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য একসাথে আপনার উপজেলার নির্বাচন কমিশন অফিসে গিয়ে জমা দিতে হবে।

নতুন ভোটার আইডি কার্ডের জন্য প্রয়োজনীয় সব কাগজপত্র

নতুন ভোটার হওয়ার জন্য কি কি কাগজপত্র লাগে?

নতুন ভোটার আইডি করার জন্য উপজেলা নির্বাচন কমিশন অফিসে আবেদন ফরমের সাথে যে সকল কাগজপত্র জমা দিতে হয় তা নিচে দেওয়া হলো-

  • জন্ম নিবন্ধনের ফটোকপি
  • পিতা মাতার ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি
  • চেয়ারম্যান কর্তৃক প্রত্যায়ন পত্র (ইউনিয়ন সার্টিফিকেট)
  • শিক্ষিত হলে এসএসসি/এইচএসসি সার্টিফিকেট মার্কশিট শিক্ষাগত সনদের সত্যায়িত ফটোকপি
  • রক্তের গ্রুপ পরীক্ষা করা হলে তার ফটোকপি
  • বিদ্যুৎ বিল (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)
  • জমির কাগজ (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)

এই সকল কাগজপত্র গুলো জমা করে আপনার নির্বাচন কমিশন অফিসে গিয়ে জমা দিয়ে দিবেন অনলাইন ভোটার আইডি কার্ড ফরমের সাথে তখন তারা আপনাকে একটি বলে দিবে ফটো এবং ফিংগার দিতে কোন দিন যেতে হবে এবং এটির মেসেজ আপনার ভোটার আইডি আবেদন করার সময় যে নাম্বার দিয়েছেন এই নাম্বারে আসবে ফটো এবং ফিংগার দেওয়ার পর আপনাকে একটি স্লিপ নাম্বার দিবে এই স্লিপ নাম্বার দিয়ে আপনি ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে পারবেন এবং পরবর্তী সময়ে এই নাম্বার দিয়েও আপনাকে আপনার ভোটার আইডি কার্ড আনতে হবে।

ভোটার আইডি কার্ড চেক করার নিয়ম

ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে আপনার সবকিছু নির্বাচন কমিশন অফিসে জমা দেওয়ার ২১ দিন পর আপনি আপনার ভোটার আইডি কার্ড চেক অনলাইনে করতে পারবেন ভোটার আইডি কার্ড কিভাবে চেক করবেন এর জন্য ভিজিট করুন

ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করার নিয়ম

ভোটার আইডি কার্ডের মধ্যে অনেক সময় আমাদের ভুলের কারণে আইডি কার্ডের নাম জন্ম তারিখ ঠিকানা পিতা মাতার নামে বিভিন্ন সময় ভুল হয়ে যায় তবে এটি সংশোধন অবশ্যই করতে পারবেন ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করতে কি কি প্রয়োজন কিভাবে করবেন এই সবকিছু পড়তে ভিজিট করুন

নতুন ই-পাসপোর্ট করার নিয়ম ২০২২

নতুন ই পাসপোর্ট করার জন্য আপনাকে অবশ্যই নতুন পাসপোর্ট করার নিয়ম সম্পর্কে জানতে হবে আর এখন ইপাসপোর্ট চালু হয়েছে তাই নতুন নতুন অনেক নিয়ম ও বাংলাদেশ পাসপোর্ট অধিদপ্তর চালু করেছে তাই কিভাবে আপনি ইপাসপোর্ট করার জন্য অনলাইন আবেদন করবেন কি কি কাগজপত্র প্রয়োজন পড়বে এই সব তথ্য জানতে ভিজিট করুন আমাদের নতুন ইপাসপোর্ট করার নিয়ম এই পোস্টে।

ধন্যবাদ সবাইকে আমাদের এই পোস্টটি আপনার উপকারী হলে অবশ্যই শেয়ার করতে ভুলবেন না এবং কোনকিছু বুঝার হলে অবশ্যই কমেন্ট করবেন আমরা বুঝিয়ে দেওয়ার পরিপূর্ণ চেস্টা করব। ধন্যবাদ

Leave a Reply