বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে সাধারন জ্ঞান ২০২২ (ভাইবা প্রশ্ন বিসিএস ইত্যাদি)

You are currently viewing বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে সাধারন জ্ঞান ২০২২ (ভাইবা প্রশ্ন বিসিএস ইত্যাদি)
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে সাধারন জ্ঞান

প্রিয় বন্ধুরা আজ আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করলাম বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে সাধারন জ্ঞান ও শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নাবলী।যা আমাদের জীবন সাজাতে জীবনের লক্ষ্যে পৌঁছতে সাহায্য করবে। কেননা আমাদের জীবন এর লক্ষ্যে পৌঁছতে অনেক পরীক্ষা দিতে হয় প্রাইমারি , নিবন্ধন, বিসিএস প্রিলিমিনারি এমনকি অনেক ভাইভা পরীক্ষা ইত্যাদি পরীক্ষায় এই প্রশ্নগুলো থেকে অনেক কমন পড়ে মন দিয়ে পড়লে ইনশাআল্লাহ আপনাদের কাজে লাগবে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সম্পর্কে সাধারন জ্ঞান ২০২২

জন্মপরিচয়:

  • বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম ১৯২০ সালের ১৭ ই মার্চ।(১৩২৬ সালের ৩ মার্চ)।
  • বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জন্মভূমি গোপালগঞ্জ , টুঙ্গিপাড়ার বাইগার নদীর তীরে অবস্থিত।
  • বঙ্গবন্ধুর জন্ম স্থান বর্তমান পাটগাতি ইউনিয়ন এর অধীন।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর পিতার নাম শেখ লুৎফর রহমান

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর মাতার নাম সায়েরা খাতুন

  • বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর সহধর্মিণীর নাম বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিব।
  • বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৫ জন সন্তান । তিন ছেলে ও দুই মেয়ে ।দুই মেয়ে উনারা হলেন শেখ হাসিনা ,ও শেখ রেহানা
  • আর তিন ছেলে ,শেখ কামাল, শেখ জামাল, শেখ রাসেল।
  • পিতা ও মাতা শেখ মুজিবুর রহমান কে খোকা নামে ডাকতেন।
  • মুজিব শব্দের অর্থ উত্তরদাতা।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রচনা

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কে বলা তাঁর বাবার উক্তি” Sincerity of purpose and honesty of purpose

  • বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর শিক্ষা জীবন শুরু হয় গোপালগঞ্জের গিমাডাঙ্গা প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।
  • মাত্র ১৪ বছর বয়সে ১৯৩৪ সালে তিনি বেরবেরি রোগ এ আক্রান্ত হন । তাঁর একটি চোখ কলকাতায় অপারেশন করা হয় ।চার বছর তিনি পড়াশোনা করতে পারেননি।
  • বঙ্গবন্ধু প্রথম কারাবরণ করেন ১৯৩৮ সালে (০৭ দিন).
  • বঙ্গবন্ধু ম্যাট্রিক পাশ করেন গোপালগঞ্জ মিশনারি স্কুল থেকে ১৯৪২ সালে।
  • এন্ট্রাস পাশ করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কলকাতা ইসলামীয়া কলেজে ইন্টারমিডিয়েট ক্লাসে ভর্তি হন।এ সময় তিনি বেকার হোস্টেলে ২৪ নং কক্ষে থাকতেন।
  • বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আনুষ্ঠানিক ভাবে রাজনীতিতে অভিষিক্ত হন ১৯৪৪ সালে কুষ্টিয়ায় অনুষ্ঠিত নিখিল বঙ্গ মুসলিম ছাত্র লীগের সম্মেলনে যোগদান মাধ্যমে।
  • বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী র সহকারী হিসেবে ১৯৪৬ সালে নিযুক্ত হন।
  • বঙ্গবন্ধু বি এ পাশ করেন ১৯৪৭ সালে কলকাতা ইসলামীয়া কলেজ থেকে।
  • বঙ্গবন্ধু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন বিভাগে ১৯৪৮ সালে ভর্তি হন।
  • ১৯৪৮ সালের ৪ জানুয়ারি ছাত্রলীগ প্রতিষ্ঠা করেন।এ বছরেই রাষ্ট্রভাষার দাবীতে প্রতিবাদ আন্দোলন এর সময় ১১ই মার্চ বঙ্গবন্ধু গ্ৰেফতার হন।
  • ১৯৪৯ সালের ২৩ জুন আওয়ামী মুসলিম লীগ গঠিত হয়। বঙ্গবন্ধু দলের যুগ্ম সম্পাদক নির্বাচিত হন।ভূখা মিছিলে নেতৃত্ব দেয়ার কারণে গ্ৰেফতার হন এবং ২ বছর ৫ মাস অন্তরীণ ছিলেন।
  • বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৪৯ সালে চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীদের আন্দোলনে সংহতি প্রকাশ করায় বহিষ্কৃত হন।
  • পরবর্তীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ছাত্রত্ব ফিরিয়ে দেয়।১৯৫২ সালের ২৬ জানুয়ারি খাজা নাজিমুদ্দিন ঘোষণা করেন ” পাকিস্তান এর ‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌‌রাষ্ট্রভাষা হবে উর্দু ” এর প্রতিবাদে বন্দী থাকা অবস্থায় ১৬ ফেব্রুয়ারিতে রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কারাগারে অনশন করেছেন। ভাষার দাবিতে বঙ্গবন্ধু ১৩ বার অনশন করেছেন।
  • ১৯৫৪ সালের ১০ মার্চ সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় উক্ত নির্বাচনে বঙ্গবন্ধু গোপালগঞ্জ আসনে বিজয়ী হন।
  • বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৫৪ সালের যুক্তফ্রন্ট মন্ত্রীসভায় সর্বকনিষ্ঠ মন্ত্রী ছিলেন।
  • ১৯৫৪ সালের যুক্তফ্রন্ট মন্ত্রীসভায় শেখ কৃষি ও বনমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন।
  • ১৯৫৫ সালের ৫ জুন শেখ মুজিবুর রহমান গনপরিষদ এর সদস্য নির্বাচিত হন।

যেকোনো চাকরির পরীক্ষার জন্য গুরুত্বপূর্ণ সাধারণ জ্ঞান

স্বায়ত্বশাসন দাবি

  • আওয়ামী লীগ এর উদ্যোগে ১৭ জুন পল্টন ময়দানে জনসভা থেকে পূর্ব পাকিস্তানের স্বায়ত্তশাসন দাবি করে ২১ দফা ঘোষণা করা হয়।
  • ১৯৫৬ সালে বঙ্গবন্ধু কোয়ালিশন সরকারের শিল্প, বাণিজ্য,শ্রম ও দুর্নীতি দমন ও ভিলেজ এইড দপ্তরের মন্ত্রীর দায়িত্ব লাভ করেন।
  • ১৯৫৭ সালে সংগঠন কে সুসংগঠিত করার লক্ষ্যে দলীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বঙ্গবন্ধু মন্ত্রীসভা থেকে পদত্যাগ করেন।
  • ১৯৫৮ সালে আইয়ুব খান সামরিক শাসন জারি করেন এবং রাজনীতি নিষিদ্ধ করেন। এসময় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পুনরায় গ্ৰেফতার হন।

স্বাধীন বাংলা বিপ্লবী পরিষদ:

  • ১৯৬১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের লক্ষ্যে কাজ করার জন্য বিশিষ্ট ছাত্র নেতৃবৃন্দ দ্ধারা ‘স্বাধীন বাংলা বিপ্লবী পরিষদ ‘নামে একটি গোপন সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেন।
  • ১৯৬২ সালে বঙ্গবন্ধু জননিরাপত্তা আইনে গ্ৰেফতার হন।
  • ১৯৬৩ সালের ৫ ডিসেম্বর বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক গুরু হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী মৃত্যুবরণ করেন।

ছয় দফা দাবি:

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৬৬ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি লাহোরে বিরোধী দলসমূহের জাতীয় সম্মেলনে ছয় দফা উত্থাপন করেন।

  • ১৯৬৬ সালে ১ মার্চ বঙ্গবন্ধু আওয়ামী লীগ সভাপতি নির্বাচিত হন।
  • আওয়ামী লীগ এর কাউন্সিল অধিবেশনে ৬ দফা গৃহীত হয় ১৯৬৬ সালের ১৮ মার্চ।
  • বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আনুষ্ঠানিকভাবে ১৯৬৬ সালের ২৩ মার্চ ছয় দফা দাবি ঘোষণা করেন।
  • ছয়দফা রচিত হয় লাহোর প্রস্তাব এর ভিত্তিতে।
  • ছয়দফার প্রথম দফা ছিল স্বায়ত্তশাসন।
  • “বাঙালি জাতির মুক্তির সনদ” হিসেবে পরিচিত ছয় দফা দাবি ।
  • ঐতিহাসিক ছয় দফা দাবির তিনটি দফাতেই অর্থনীতি এবং বৈদেশিক নীতি বিষয় নিয়ে দাবি জানানো হয়।
  • ১৯৬৮ সালের ৩ জানুয়ারি রাষ্ট্রদ্রোহীতার অভিযোগ এনে আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা দায়ের করা হয়।
  • আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার আসামি ছিলেন ৩৫ জন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১ নং আসামি।
  • আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা ” রাষ্ট্র বনাম শেখ মুজিবুর রহমান ও অন্যান্য ” নামে দায়ের করা হয়েছিল।

১৯৬৯ এর গন অভূৎথান।

  • শেখ মুজিবুর রহমান এর ছয় দফা ও ১১ দফা দাবির ভিত্তিতে আইয়ুব সরকারের বিরুদ্ধে ১৯৬৯ এর গন অভূৎথান পরিচালিত হয়।
  • জনগণের অব্যাহত চাপের মুখে আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা প্রত্যাহার করা হয় ২২ ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯ সালে।
  • ‘ সত্য মামলা আগরতলা ‘- আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা নিয়ে কর্ণেল শওকত আলী রচিত একটি বই ।
  • শেখ মুজিবুর রহমানকে ২৩ ফেব্রুয়ারি রেসকোর্স ময়দানে সংর্বধনা দেয়া হয়।

বঙ্গবন্ধু উপাধি:

  • শেখ মুজিবুর রহমানকে বঙ্গবন্ধু উপাধি দেন তৎকালীন ডাকসুর ভিপি তোফায়েল আহমেদ।
  • বঙ্গবন্ধু উপাধি দেয়া হয় রেসকোর্স ময়দানে।
  • বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানক পূর্ব বাংলাকে ‘ বাংলাদেশ ‘ নামকরণ করেন ৫ ডিসেম্বর ১৯৬৯ সালে।
  • ১৭ অক্টোবর ১৯৭০ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তাঁর দলের নির্বিচনী প্রতীক হিসেবে নৌকা প্রতীক পছন্দ করেন।
  • ১৯৭০ সালের ৭ ডিসেম্বর জাতীয় পরিষদ নির্বাচন এবং ১৭ ডিসেম্বর প্রাদেশিক পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। তবে পূর্ব পাকিস্তানের জলোচ্ছ্বাস দূর্ঘত এলাকার আসনে ১৭ জানুয়ারি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।
  • জাতীয় পরিষদ নির্বাচনে পূর্ব পাকিস্তানের আসন ছিল ১৬৯ টি , তন্মধ্যে আওয়ামী লীগ আসন‌ পায় ১৬৭ টি।
  • প্রাদেশিক পরিষদের নির্বাচনে মোট আসন ছিল ৩১০ টি। তন্মধ্যে আওয়ামী লীগ পায় ২৯৮ টি আসন
  • ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ এর নেতৃত্ব দেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।
  • ১৯৭০ সালের নির্বাচনে বাঙালিদের অধিকার এর ম্যাগনাকার্টা হিসেবে খ্যাত হয় ১৯৬৬ সালের ৬ দফা দাবি।
  • ১৯৭০ সালের নির্বাচনে ইশতেহার এর মূল প্রতিপাদ্য ছিল ছয় দফা দাবি।
  • বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কে’ জাতির জনক ‘ উপাধি দেয়া হয় ৩ মার্চ ১৯৭১ ।
  • উপাধি দেন আর স ম আব্দুর রব।
  • ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধু ৭ মার্চ এর ভাষন দেন ঢাকার রেসকোর্স ময়দানে ,যা এখন সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে নামে পরিচিত।
  • বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৭ ই মার্চ এর বিষয়বস্তু ছিল চারটি।
  • ক, নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করা।
  • খ, গনহত্যার তদন্ত করা।
  • গ, সামরিক আইন প্রত্যাহার করা।
  • ঘ, সেনাদের ব্যারাকে ফিরিয়ে নেয়া।

” এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম”

  • বঙ্গবন্ধুর ৭ ই মার্চ এর ভাষনের মূল্ বক্তব্য ছিল ‘ এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম এবারের সংগ্রাম আমাদের স্বাধীনতার সংগ্রাম ‘।
  • ১৯৭১ সালের ৭ ই মার্চ বঙ্গবন্ধুর ভাষণের ব্যাপ্তি ছিল ১৮ মিনিট।
  • বঙ্গবন্ধুর ধানমন্ডির বাড়িতে প্রথম ২৩ মার্চ ,১৯৭১ সালে বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন করা হয়।
  • ১৯৭১ সালে ২৫ শেখ মার্চ মধ্যরাতে অর্থ্যা ২৬ মার্চ এ‌ বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশর স্বাধীনতা ঘোষণা করেন।এরপর ই পাকিস্তান সেনাবাহিনী বঙ্গবন্ধু কে গ্ৰেফতার করে।
  • বঙ্গবন্ধু কে গ্ৰেফতার করা হয় অপারেশন বিগবার্ড এর মাধ্যমে।

বঙ্গবন্ধু কর্তৃক প্রদত্ত স্বাধীনতার ঘোষণাটি –

“This may be my last message, from today Bangladesh is independent.I call upon the people of Bangladesh wherever you might be and with whatever you have to resist the army of occupation to the last.Your fight must go on until the last soldier of the Pakistan occupation army is expelled from the soil of Bangladesh and final victory is achieved.”

  • ১৯৭১ সালের ১০ এপ্রিল প্রবাসী সরকার গঠন করা হয় এবং ১৭ এপ্রিল প্রবাসী সরকার শপথ গ্ৰহন করে বর্তমান মেহেরপুর জেলার বৈদ্যনাথ তলার ভবেরপাড়া গ্ৰামে যার বর্তমান নাম মুজিবনগর।
  • মুজিবনগর সরকারের রাষ্ট্রপতি ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।
  • ১৯৭১ সালের ১৭ এপ্রিল গঠিত অস্থায়ী সরকারে বঙ্গবন্ধুর পদ রাষ্ট্রপতি।
  • বঙ্গবন্ধু পাকিস্তানের কারাগার থেকে মুক্তি পান ১৯৭২ সালের ৮ জানুয়ারি।
  • ১৯৭২ সালের ৯ জানুয়ারি পাকিস্তান থেকে লন্ডনে যান এবং ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী এডএয়ার্ড হিথের সাথে সাক্ষাৎ করেন।
  • লন্ডন থেকে ঢাকা যাওয়ার পথে তিনি ভারতের দিল্লিতে যান এবং ভারতের রাষ্ট্রপতি ভি ভি গিরি এবং প্রধানমন্ত্রী শ্রীমতি ইন্দিরা গান্ধীর সঙ্গে সাক্ষাত করেন।
  • বঙ্গবন্ধু স্বাধীন বাংলাদেশে ফেরেন ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি ,যা বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস নামে পরিচিত।
  • ১০ জানুয়ারি ১৯৭২ বাংলাদেশর বিমান থেকে নেমে ভাষনে বলেছিলেন ”

” সাতকোটি সন্তানের হে মুগ্ধ জননী ,রেখেছ বাঙ্গালী করে , মানুষ করোনি – হে কবি গুরু , আপনি এসে দেখে যান , আমার বাঙালি আজ মানুষ হয়েছে

  • বঙ্গবন্ধু ১৯৭২ সালের ১১ জানুয়ারি অস্থায়ী সংবিধান আদেশ জারির মাধ্যমে সংসদীয় পদ্ধতির সরকার ব্যবস্থা প্রবর্তন করেন।
  • বঙ্গবন্ধু স্বাধীন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্ৰহন করেন ১৯৭২ সালের ১২ জানুয়ারি।
  • শেখ মুজিবুর রহমান এর অনুরোধে ক্রমে ইন্দিরা গান্ধীর নির্দেশে ১৯৭২ খ্রি,১৭ মার্চ ভারতীয় বাহিনী আনুষ্ঠানিক ভাবে বাংলাদেশর ভূ- খন্ড থেকে নিজ দেশে প্রত্যাবর্তন করেন।
  • মুক্তিযুদ্ধের সময় বঙ্গবন্ধু পাকিস্তানের করাচির মিয়ান ওয়ালী কারাগারে বন্দি ছিলেন।
  • বঙ্গবন্ধু ‘ জুলিও কুরি ‘পুরস্কারে ভূষিত হন ১০ অক্টোবর ১৯৭২ সালে।
  • ১৪ ডিসেম্বর,১৯৭২ বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশর সংবিধানে স্বাক্ষর করেন ।১৬ ডিসেম্বর এটি কার্যকর হয়।
  • ১৯৭৩ সালে প্রথম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে শেখ মুজিবুর রহমান এর নেতৃত্বে তাঁর দল আওয়ামী লীগ নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে। শেখ মুজিবুর রহমান ঢাকা ১২ আসন‌ থেকে নির্বাচিত হয়ে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্ৰহন করেন।
  • ১৯৭৩- ৭৮ খ্রিস্টাব্দব্যাপি প্রনীত বাংলাদেশর প্রথম পঞ্চ – বার্ষিক উন্নয়ন পরিকল্পনায় কৃষি,গ্ৰামীন অবকাঠামো ও কুটির শিল্প উন্নয়ন এ অগ্ৰাধিকারমূলক সরকারি অর্থ বরাদ্দের নির্দেশ দেয়া হয়।
  • বঙ্গবন্ধু ৬ সেপ্টেম্বর ১৯৭৩ ‘ জোট নিরপেক্ষ আন্দোলন ‘ এর শীর্ষ সম্মেলনে যোগদান এর জন্য ‌‌‌‌‌‌‌‌‌আলজেরিয়া যান।
  • ১৯৭৪ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ২৯ তম অধিবেশনে বঙ্গবন্ধু প্রথম নেতা হিসেবে বাংলায় ভাষণ দেন।
  • বঙ্গবন্ধু ১৯৭৫ সালের ২৫ জানুয়ারি সংবিধান এর ৪র্থ সংশোধনীর মাধ্যমে দেশে রাষ্ট্রপতি শাসন ব্যাবস্থা প্রবর্তন করেন।
  • শেখ মুজিবুর রহমান এর নির্দেশে ১৯৭৫ খ্রি, ২১ জুন মহকুমা কে জেলায় উন্নীত করে পূর্বের ১৯ জেলার স্থলে ৬১ টি জেলা সৃষ্টি করা হয়।
  • ১৬ জুলাই ১৯৭৫ সালে শেখ মুজিব ৬১ জেলার প্রতিটির জন্য একজন করে গভর্নর নিয়োগ দেন।
  • বঙ্গবন্ধু ক্ষমতায় থাকাকালীন বাংলাদেশ ১২৬ টি দেশের স্বীকৃত লাভ করে।
  • বঙ্গবন্ধু সপরিবারে নিহত হন ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট
  • বঙ্গবন্ধু শহীদ হন ইং ১৫ আগষ্ট ১৯৭৫ , বাংলা ২৯ শ্রাবণ ১৩৮২ , আরবি ৮ শাবান ১৩৯৫ , শুক্রবার।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আমাদের অহংকার , জাতির জনক, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্য ই আমরা আজ মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে আছি বিশ্ব দরবারে ।তাই এই জাতির পিতা সম্পর্কে কিছু প্রশ্নাবলী আমাদের জীবন এ চলার পথে জ্ঞানের অনুসন্ধান এ সাহায্য করিয়ে যাবে ইনশাল্লাহ বেশি বেশি করে প্রশ্নগুলো পড়বেন এবং শেয়ার করবেন।

Leave a Reply