১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা আগামী ২৩ ও ২৪ ডিসেম্বর

You are currently viewing ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা আগামী ২৩ ও ২৪ ডিসেম্বর

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম, দীর্ঘ তিন বছর পর অর্থাৎ তিন বছর অপেক্ষার পর শুরু হতে যাচ্ছে ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা ২০২২ । ১৭ তম নিবন্ধন পরীক্ষায় যারা আবেদন করেছেন তাঁদের জন্য আসলেই এটা একটি বিরাট সুখবর ।

২৪ টি কেন্দ্র নির্ধারণ করা হয়েছে এর কাজ ও চলছে যদিও এটা নোটিশ আকারে এখনো আসেনি ।তবে পরীক্ষা আগামী ২৩ ও ২৪ ডিসেম্বর হবে ইনশাআল্লাহ ।তাই সকল নিবন্ধন পরীক্ষার্থীদের জন্য আহ্বান আপনারা নিজেদের কে পরীক্ষার উপযোগী করে গড়ে তোলেন , কেননা এই পরীক্ষা পূর্বের মতন এতটা সহজ নাও হতে পারে।,

17th ntrca circular 2022 exam date

১৭ তম নিবন্ধন পরীক্ষায় চারটি মানদন্ডের ভিত্তিতে লিখিত পরীক্ষায় প্রার্থী নির্বাচন করা হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে তিন বছর পর ডিসেম্বর এ ১৭ তম নিবন্ধন প্রিলিমিনারি পরীক্ষা শুরু হতে যাচ্ছে। আগামী ২৩ ও ২৪ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে।

১৭ তম নিবন্ধন পরীক্ষায় এবার চারটি মানদন্ডের ভিত্তিতে লিখিত পরীক্ষায় প্রার্থী নির্বাচন করা হবে। এতদিন পাশ নম্বর পেলেই সবাইকে উত্তীর্ণ ও সনদধারী হিসাবে ঘোষণা করা হত

১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা
১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা

প্রার্থী নির্বাচন এর মানদন্ড হল কর্তৃপক্ষ, এলাকা, বিষয়, এবং পদভিত্তিক শিক্ষকের শূন্য পদের ভিত্তিতে প্রয়োজনীয়তা অনুসারে ঐচ্ছিক বিষয়। বিসিএস পরীক্ষায় ও সাক্ষাৎকার এ ডাকার ক্ষেত্রে শূন্য পদের বিপরীতে অনুপাত বিবেচনা করা হত।এরপর লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর যোগ করে মেধা তালিকা তৈরি করা হয়।১৭ তম নিবন্ধন পরীক্ষায় অর্থাৎ এ ক্ষেত্রে একই নীতি অনুসরণ করা হবে।তবে কেউ আলাদা ভাবে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় নম্বর ৪০ না পেলে ফেল হিসাবে তাকে বাদ দেয়া হবে।২০২০ সালের ২৩ জানুয়ারি ১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন এর বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়।এতে ১১ লাখ ৭২ হাজার ২৮৬ জন আবেদন করে ।ওই বছরই ১৫ ও ১৬ মে ১৭ তম নিবন্ধন এর প্রিলিমিনারি ও ৭ ও ৮ আগষ্ট লিখিত পরীক্ষা নেয়ার কথা ছিল । কিন্তু করোনা ভাইরাস সংক্রমণের পর ওই বছরের ২৬ এপ্রিল পরীক্ষা দুটি স্থগিত করা হয়। আবেদন নেয়ার ৩ বছর পর পরীক্ষা আয়োজন করায় বিপুল সংখ্যক প্রার্থী ক্ষতিগ্রস্ত হতে যাচ্ছে। সর্বশেষ নিয়মানুযায়ী বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের চাকরির নূন্যতম বয়স ৩৫ বছর ।তাই যাদের ওই বয়স পার হয়ে গেছে তাদের পরীক্ষা দেয়া বা না দেয়া সমান ভাবা যায়।

১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা ২০২২

বর্তমানে এনটিআরসিএ সরাসরি চাকরির সুপারিশ করেছে ।তাই ব্যাক্তিগতভাবে এমপিও ভুক্ত পদে চাকরি নেওয়ার সুযোগ কম।যদিও সনদের মেয়াদ আজীবন ।এ অবস্থায় যারা পরীক্ষা দিতে চাইবে না তাদের ব্যাংক ড্রাফটের অর্থের কি হবে সেটা একটা বড় প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে।এ প্রশ্নের জবাব দিতে অপারগতা প্রকাশ করেছে এনটিআরসিএ কর্মকর্তারা। তাঁরা বলেন মেয়াদ যেহেতু আজীবন তাই পরীক্ষা দিতে চাইলে দিতে পারেন। এমনকি ৫০ বছর বয়সে ও পরীক্ষা নেয়া হয় ।

জাতীয় শিক্ষক সচিব মোঃ ওবায়দুর রহমান জানান করোনার প্রকোপ চলে গেলে ও কম্পিউটার সেল ও সার্ভার স্থাপন সংক্রান্ত জটিলতায় পরীক্ষা দিতে বিলম্ব হয়েছে । ধানমন্ডিতে যে অফিস রয়েছে সেটি ও তাদের হাতছাড়া হয়ে গেছে।

১৭ তম নিবন্ধন পরীক্ষার জন্য এখন ইস্কাটনে এনটিআরসিএ এর প্রধান কার্যালয়ে সার্ভার রুম হস্তান্তর করা হয়েছে ।তবে যথাসময়ে নিয়োগ সম্পন্ন না হলে প্রয়োজনে আউটসোর্সিং করে কাজ চালিয়ে নেয়া হবে

১৭ তম নিবন্ধন পরীক্ষা নেয়ার লক্ষ্যে প্রশ্ন প্রনয়ন ,মডারেশন ও বিজি প্রেস এর সঙ্গে যোগাযোগ কাজ চলছে ।১৭ তম নিবন্ধন পরীক্ষা নেয়ার জন্য সারা দেশে ২৪ টি কেন্দ্র প্রস্তূত কাজ চলছে।

১৭ তম নিবন্ধন পরীক্ষায় যারা ই অংশগ্রহণ করবেন তাদের জন্য আমার অনুরোধ এই দীর্ঘ তিন বছর পর এর পরীক্ষা যেন বৃথা না যায় , আপনাদের স্বপ্ন পূরণ করতে আমরা ও আপনাদের সাথে আছি প্রতিদিন শেয়ার করব ইনশাআল্লাহ কি, কি পড়া ও জানা দরকার। সাম্প্রতিক যা আছে এবং বাংলা, ইংরেজি, গনিত , সাধারণ জ্ঞান সবগুলো ভালো করে পড়তে হবে যাতে পরীক্ষার হলে প্রশ্ন পাওয়ার সাথে সাথেই।

Leave a Reply