জনতা ব্যাংক লোন: জনতা ব্যাংক লোনের জন্য আবেদন করার নিয়ম | Janata Bank Loan System

You are currently viewing জনতা ব্যাংক লোন: জনতা ব্যাংক লোনের জন্য আবেদন করার নিয়ম | Janata Bank Loan System

জনতা ব্যাংক লোন এবং জনতা ব্যাংক লোনের জন্য আবেদন করার নিয়ম: প্রথমে আপনার নিকটস্থ জনতা ব্যাংক লিমিটেড এর শাখায় যাবেন। আপনি কোন ধরনের লোন পেতে ইচ্ছুক সে বিষয়ে লোন অফিসারের সাথে কথা বলুন। ব্যাংক থেকে আপনাকে লোন ফরম সংগ্রহ করুন। আবেদন ফরমটি পূরণ করে প্রয়োজনীয় নথিপত্রসহ জমা দিন। আপনার পেশকৃত তথ্য ব্যাংক কর্তৃপক্ষ যাচাই বাছাই করবে। ব্যাংক আপনার লোনের আবেদনটি মঞ্জুর করলে, নির্দিষ্ট সময় পরে জনতা ব্যাংক থেকে লোন নিতে পারবেন।

জনতা ব্যাংক লোন

জনতা ব্যাংক গৃহনির্মাণ লোন প্রকল্প।Janata Bank Home loan

বাড়ি নির্মাণ কিংবা বাড়ি কেনার জন্য বাংলাদেশ জনতা ব্যাংক লিমিটেড হোম লোন বা ঘরবাড়ি লোন দিয়ে থাকে। হোম  নির্মানের জন্য  মোট  নির্মাণ ব্যায়ের।

  • সর্বোচ্চ ৬০% ঋণ প্রদান করে থাকে।
  • লোন পরিশোধের সময়সীমা ১ থেকে ১৫ বছর।
  • মাসিক ১১ শতাংশ চক্রবৃদ্ধি সুদ।
  • নির্দিষ্ট কয়েকটি অনুমোদিত শাখার মাধ্যমে হোম লোন প্রদান করা হয়ে থাকে।
  • হোম লোনের জন্য সংশ্লিষ্ট জমি এবং নির্মাণাধীন বা নির্মিতব্য ভবন রেজিস্টার্ড মর্টগেজ হিসেবে ব্যাংকের নিকট জামানত রাখতে হবে।

অন্যান্য ব্যাংকে লোন নেওয়ার পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন নিচের লিংক গুলোতে।

জনতা ব্যাংক গৃহনির্মাণ লোন প্রকল্পের যোগ্যতা ও শর্ত।

  • আবেদনকারীকে বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে।
  • ইকুইটি বিনিয়োগ করার সামর্থ্য।
  • লোন পরিশোধের জন্য অনুকূল ক্যাশ ফ্লো।
  • জনতা ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট শাখায় জমা হিসাব
  •  হোম বা বাড়ি নির্মাণের জন্য প্রস্তাবিত প্রকল্প সম্পত্তি গ্রহণযোগ্য হতে হবে।

জনতা ব্যাংক কৃষি ঋণ প্রকল্প। (Agriculture Loan)

বাংলাদেশ একটি কৃষি প্রধান দেশ। কিন্তু বাংলাদেশের কৃষকগন সামাজিক ও আর্থিক উভয় ক্ষেত্রেই অবহেলিত। বাংলাদেশের কৃষকদের কথা মাথায় রেখে এই জনগোষ্ঠীর উন্নয়নে বাংলাদেশ জনতা ব্যাংক কৃষি লোন প্রদান করে থাকে।
যেসব ক্ষেত্রে কৃষি লোন।

  • সকল প্রকার মাছ চাষ।
  • ফল এবং ফুল চাষে জনতা ব্যাংক লোন।
  • গবাদিপশু পালনে জনতা লোন।
  • গবাদি পশু মোটজাতকরন জনতা লোন
  • তেল বীজ জাতীয় ফসল উৎপাদনের জন্যই জনতা ব্যাংক কৃষি লোন দিয়ে থাকে।

জনতা ব্যাংক কৃষি লোন প্রকল্পের যোগ্যতা ও শর্ত:

কৃষি ঋণ পেতে ইচ্ছুক ব্যাক্তিকে অবশ্যই সরাসরি কৃষি কাজের সাথে জড়িত থাকতে হবে। ফসল উৎপাদনের তিন মাসের মধ্যে পরিশোধ করার
শর্তে জনতা ব্যাংক কৃষি ঋণ প্রদান করে থাকে।

জনতা ব্যাংকে কৃষি লোন প্রকল্পের শর্ত।

জনতা ব্যাংকের কৃষি লোন প্রকল্পের কিছু শর্ত রয়েছে।

  • যেখানে জামানত হিসেবে কমপক্ষে ২.৫ একর জমি থাকতে হবে।
  •  ডাল, তৈলবীজ, মসলা জাতীয় ফসল ও ভুট্টা চাষের জন্য জামানত হিসেবে কমপক্ষে ৫ একর জমি থাকতে হবে।
  •  গাভীপালন ও গ্রীষ্মকালীন ফসল চাষের জন্য কোন জামানতের প্রয়োজ নেই।

জনতা সাপোর্ট পেনশনভোগীদের জন্য বিশেষ ঋণ।

একজন অবসর প্রাপ্ত সরকারি বা স্বায়ত্তশাসিত সংস্থার পেনশনভোগীর জন্য রয়েছে জনতা ব্যাংকের লোন। জনতা ব্যাংক তাদেরকে লোন দিয়ে থাকে।  তবে এই লোনের জন্য আবেদন করতে  জনতা ব্যাংকের যে শাখা হতে আপনার  টাকা উত্তোলন করেন সেই শাখায় এই লোনের জন্য আবেদন করতে হবে।

জনতা পেনশনভোগীদের সুবিধা ও শর্ত।

জনতা ব্যাংকের পেনশন লোন প্রকল্পের কিছু শর্ত রয়েছে।

  • জনতা সাপোর্ট পেনশনভোগীদের জন্য  ঋণ সর্বোচ্চ ১০ লক্ষ টাকা।
  • এবং সুদের হার ৯ শতাংশ।
  •  পেনশনের টাকা থেকে কিস্তি কেটে রেখে দিবে বাকি টাকা আপনি উত্তোলন করতে পারবেন।

কনজ্যুমারস ফাইন্যান্সিং লোন প্রকল্প।

কনজ্যুমারস ফাইন্যান্সিং এর অন্তর্ভুক্ত যেসব বিষয়।

  • ভোক্তা ক্রেডিট।
  • সাইবার ক্যাফে লোন।
  • ঘর সংস্কার লোন।
  • চাকরিজীবী ও ডাক্তারদের জন্য লোন।
  • সরকারি কর্মচারীদের গৃহ নির্মাণ লোন।
  • স্বাস্থ্যসেবা ঋণ
  • সাপোর্ট পেনশন ঋণ।
  • শিক্ষা ঋণ।

অটো লোন ।

লোনের যোগ্যতা ও শর্ত।

এই ধরনের ঋণ পেতে ঋণ পেতে ইচ্ছুক ব্যাক্তিকে কিছু যোগ্যতা সম্পন্ন হতে হবে।

  • বাংলাদেশী নাগরিক।
  • সরকারি, আধাসরকারী, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান কিংবা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরিজীবী হতে হবে।
  • চাকরিরত প্রতিষ্ঠান প্রধানের প্রত্যায়নপত্র।
  • লোনের পরিমাণ মূল বেতনের সর্বনিম্ন ১২ গুন।
  • এই ধরনের লোনের সময়সীমা ২ থেকে ৪ বছরে।
  •  সুদের হার ৯ শতাংশ।

ট্যানারি ট্রেডিং লোন প্রকল্প।

চামড়াজাত শিল্প গুরুত্বপূর্ণ একটি শিল্প। এ শিল্প ও চামড়া ব্যবসায়ের সাথে জড়িতদের জন্য অনেক ধরণের সহায়তা রয়েছে। এমন ব্যবসায়ের জন্য বাংলাদেশ জনতা ব্যাংক লোন দেয়।তাদের জন্য বিশেষ লোন সুবিধা চালু রেখেছে।

জনতার এই লোনের সুবিধা ও শর্ত।

  • সর্বোচ্চ ১ বছর মেয়াদে পরিশোধযোগ্য।
  • এই লোনের সুদের হার ৯ শতাংশ।
  • জামানত হিসেবে স্থায়ী ও ফাইনান্সিয়াল অবলিগেশন প্রস্তাবিত লোনের ১.৫গুন।

 জনতা ব্যাংক কমার্শিয়াল রিয়েল এস্টেট লোন

জনতা ব্যংকের অন্যতম লোন হলো কমার্শিয়াল রিয়েল এস্টেট।
কমার্শিয়াল লোন মানে ক্রয়-বিক্রয়ের জন্য ভবন বা স্থাপনা নির্মাণের জন্য জনতা ব্যাংক কমার্শিয়াল রিয়েল এস্টেট লোন প্রদান করে থাকে।

শাখা ভবন। আর ভাড়ার উদ্দেশ্যে নির্মিত বাণিজ্যিক ভবনের জন্য ১৮ মাস বা সর্বোচ্চ ১৫ বছে মেয়াদী এবং শপিংমল, অফিস স্পেস, এপার্টমেন্ট বিক্রির উদ্দেশ্যে নির্মিত বাণিজ্যিক ভবনের জন্য ২৪ মাস থেকে সর্বোচ্চ ৩ বছর মেয়াদী কমার্শিয়াল রিয়েল এস্টেট লোন প্রদান করে থাকে।

জনতা ব্যাংক বিশেষায়িত লোন প্রকল্প।

জনতা ব্যাংকের বিশেষয়িত লোন যে ক্ষেত্রে পাবে।

  • সাইকেল কেনার জন্য।
  • প্রশিক্ষিত যুবক।
  • নারী উদ্যোক্তাদের জন্য বিশেষ সুবিধাসম্বলিত লোন।
  • ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী।
  • নারী বান্ধব স্কুটারস ঋণ।
  • মুক্তি যদ্ধাদের জন্য ঋণ।
  • ১০ টাকার হিসাব ধারীদের জন্য লোন জনতা ব্যাংক বিশেষায়িত লোনের অন্তর্ভুক্ত।
  • এই লোনের জন্য ট্রেড লাইসেন্সসহ ব্যবসায় থাকতে হবে।
  • সুদের হার ৪% থেকে ৯%।
  • জামানতবিহীন সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা লোন প্রদান করে থাকে।

জনতা ব্যাংক কমার্শিয়াল রিয়েল এস্টেট লোনের যোগ্যতা

  •  আবেদনকারীকে বাংলাদেশের  নাগরিক হতে হবে।
  • ইকুইটি বিনিয়োগ করার সামর্থ্য।
  • বহুতল ভবন নির্মাণের পূর্ব অভিজ্ঞতা।
  • রিহ্যাবের সদস্যপদ।
  • লোন পরিশোধের জন্য পর্যাপ্ত ক্যাশ ফ্লো।
  • ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট শাখায় চলিত জমা হিসাব।
  • ট্যাক্স পরিশোধের ডকুমেন্টস থাকতে হবে।
  • জামানত হিসেবে লোনের জন্য সংশ্লিষ্ট জমি ও নির্মাণাধীন ভবন এর রেজিস্টার্ড।

এই লোনের সুদের হার ১২%চক্রবৃদ্ধি।

জনতা ব্যাংক শিক্ষা ঋণ।

জনতা ব্যাংক জনকল্যাণমূলক কাজে সহায়তা করে থাকে। তাছাড়া শিক্ষা বিস্তারে তারা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। তারা দরিদ্র শিক্ষার্থীর জন্য শিক্ষা লোন প্রদান করে।

শিক্ষা লোনের শর্ত ও যোগ্যতা

বাংলাদেশের বিভিন্ন সরকারী, আধাসরকারি, স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা, ব্যাংক, মাল্টি ন্যাশনাল কম্পানিতে কর্মরত নির্বাহী কর্মকর্তা যাদের চাকরির বয়স ২ বছর বা তার বেশি এবং মাসিক নীট বেতন নুন্যতম ২৫ হাজার বা তার বেশি তার এই ধরনের লোনের জন্য যোগ্য বলে বিবেচিত হবে।

আবেদনকারীকে পূর্বের সকল পরীক্ষায় সফলভাবে উত্তীর্ণ হতে হবে।

  • সিজিপিএ কমপক্ষে  ২.৭৫  হতে হবে।
  • জামানত বিহীন ৫০ হাজার টাকা থেকে ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত।
  •  জামানতসহকারে সর্বোচ্চ ১০ লক্ষ টাকা লোন প্রদান করে থাকে।
  • শিক্ষা ঋণ পরিশোধের মেয়াদ সর্বোচ্চ ৫ বছর।
  • জামানত হিসেবে  পরিশোধের লিখিত গ্যারান্টি দিতে হবে

পেনশনভোগীদের জন্য বিশেষ লোন প্রকল্প।

জনতা ব্যাংক পেনশনভোগীদের জন্য বিশেষ লোন ব্যবস্হা রেখেছে। নিচে আমরা পেনশনভোগীদের জনতা ব্যাংকের এ লোন পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা করব।

পেনশন লোনের তথ্য

  • পেনশনভোগী অবসর প্রাপ্ত হতে হবে।
  • ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত জনতা ব্যাংক পেনশন লোন দেয়।
  • সুদের হার ৯%।
  • ৬০ টি কিস্তির মাধ্যমে, সর্বোচ্চ ৫ বছরে এই লোন পরিশোধ করতে হয়।

জনতা ব্যাংক গাভী লোন।

জনতা ব্যাংক গাভী লোন দিয়ে থাকে। গাভী লোন শুধু কৃষকরা পাবেন। জনতা ব্যাংক গাভী লোন শুধু মাত্র প্রকৃত কৃষকরা পাবেন। এজন্য প্রকৃত কৃষক হিসেবে বিবেচিত হতে হবে।

জনতা ব্যাংক গাভী লোনের সুবিধা।

জনতা ব্যাংক গাভী লোনের সুবিধা হলো।

  • ৯০ হাজার টাকা লোন পাবেন।
  • চারটি গাভী ক্রয় করতে পারবেন।
  • প্রতিটি বাবদ ৯০ হাজার খরচ করতে পারবেন।
  • ৯% সুদের হার।
  • কোন ধরনের জামানত নেই।

জনতা ব্যাংক অফিসিয়াল ওয়েবসাইট: https://www.jb.com.bd/

This Post Has One Comment

  1. MD SHARIF

    জনতা ব্যাংকে আমার কোনো একাউন্ট নেই আমি কি লোন পেতে পারি

Leave a Reply