You are currently viewing ব্র্যাক ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২২ | How to Open Brac Bank Account

ব্র্যাক ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২২ | How to Open Brac Bank Account

ব্র্যাক ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম: ব্র্যাক ব্যাংকে একাউন্ট খুলার আগে ব্র্যাক ব্যাংক সম্পর্কে কিছু তথ্য।বাংলাদেশে যে কয়টি স্বায়ত্তশাসিত বেসরকারি বানিজ্যক ব্যাংক রয়েছে ব্র্যাক ব্যাংক সেগুলোর মধ্যে অন্যতম।যার ৯০ শতাংশ ঋণ বিতরন করে ক্ষুদ্র ও মাঝারি খাতে।ফজলে হাসান আবেদ ২০০১ সালে ব্যাংকটি প্রতিষ্টা করেন। বিশ্বের ৪৮টি দেশে এর অ্যালাইন্স রয়েছে।

ব্র্যাক ব্যাংক একাউন্ট ফরম

প্রতিটি ব্যাংকের ন্যায় ব্র্যাক ব্যাংকেও সাধারণত দুই ধরনের ফরম হয়ে থাকে।

১. ব্যক্তিগত একাউন্ট ফর্মঃ যেটি মূলত ব্যক্তিগত কাজের জন্য খুলা হয়। টাকা লেনদেন, জমা রাখা ইত্যাদি কাজে ব্যবহার করতে পারবেন। আপনি চাইলে একাধিক নামে একাউন্ট খুলতে পারবেন একাধিক ফরমের মাধ্যমে। যেখানে একাউন্টের শিরোনামে ব্যক্তি নাম থাকবে।

২. প্রাতিষ্ঠানিক ফরমঃ যেটিকে অব্যক্তি একাউন্ট ও বলা হয়। নাম শুনেই বুঝতে পারছেন যা মূলত কোন প্রতিষ্ঠানের নামে খুলা হয়। এ ধরনের হিসাবের শিরোনামে প্রতিষ্ঠানের নাম থাকে।

ব্র্যাক ব্যাংকে  কত ধরনের একাউন্ট খুলতে পারবেন

ব্যাংকে নানা ধরনের একউন্ট করা যায় তবে মোটামুটি ভাবে চার ধরনে একাউন্ট আমরা দেখতে পাই।

১। কারেন্ট একাউন্ট  বা চলিত একাউন্টঃ বলতে বুঝায় সব সময়ের জন্য একটিভ একাউন্ট।  যে একাউন্টের মাধ্যমে আপনি দিনে যতবার ইচ্ছা টাকা লেনদেন করতে পারবেন। টাকা জমা রাখা কিংবা টাকা তুলা সহজ।  কোন জামেল পোহাতে হবে না আপনাকে। এধরনের একাউন্ট সাধারণত ব্যবসার  জন্য বেশি উপযোগী। এ ক্ষেত্রে ব্যাংক  আপনাকে কোন ইন্টারেস্ট প্রদান করবে না। বরং  ব্যাংক আপনার কাছ থেকে বছরে কিছু টাকা সার্ভিস চার্জ কেটে নেবে।

২। সঞ্চয়ী একাউন্ট বা সেভিংস একাউন্টঃ নাম শুনেই বুঝতে পারছেন। যাদের খুব বেশি লেনদেনে প্রয়োজন হয় না। এধরণের একাউন্ট তাদের জন্য উপযোগী। একাউন্ট থেকে আপনি সাপ্তাহে দুই থেকে তিন বার টাকা তুলতে বা জমা রাখতে পারবেন। ব্যাংক কন্ডিশন অনুযায়ী ব্যাংক আপনাকে নির্দিষ্ট হারে ইন্টারেস্ট প্রদান করবে।

৩।ডিপিএস একাউন্টঃ ভবিষ্যতের জন্য টাকা জমাতে চাইল এ একাউন্ট আপনার জন্য উপযোগী।মাসিক, বাৎসরিক একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা রাখবেন।  ব্যাংক আপনাকে নির্ধারিত হারে সুধ প্রদান করবে। তবে আপনাকে অবশ্যই চুক্তিবধ্য থাকতে হবে, যে নির্দিষ্ট মেয়াদের পূর্বে যদি টাকা উঠান তাহলে আপনি কোন প্রকার সুধ পাবেন না।

৪। ফিক্স ডিপোজিটঃ এফডিআর বলতে বুঝায়,নির্দিষ্ট সময় জন্য নির্ধারিত পরিমাণ টাকা ব্যাংকে জমা রাখা। ব্যাংক আপনাকে উক্ত টাকার উপর নির্দিষ্ট পরিমাণ হারে সুধ দিবে, হতে পারে সেটা মাসিক,  বাৎসরিক, বা অর্ধ বাৎসরিক।

ব্র্যাক ব্যাংকে একাউন্ট কিভাবে খুলবেন

১। ফর্ম সংগ্রহ করোন

অনলাইন থেকে বা নিকটস্থ  ব্র্যাক ব্যাংক শাখা থেকে ফরম সংগ্রহ করে তার মধ্যে  থাকা সমস্ত ইনফরমেশন পুরন করতে হবে। অতপর পুরনকৃত ফরম নিকটস্থ ব্যাংকে জমাদিন।

২। জাতীয় পরিচয়পত্র ও ছবি

একাউন্ট পরিচালনাকারী ব্যক্তির দুই কপি ছবি ও NID ফটো কপি (সত্যায়িত ব্যাংক কর্মকর্তা কর্তৃক)

৩। নমিনির NID ও ছবি

নমিনি দুইকপি ছবি ও NID কার্ডে ফটো কপি (সত্যায়িত ব্যাংক কর্মকর্তা কর্তৃক)

৪।এছাড়া ও NID কার্ডের পরিবর্তে e-TIN /passport /driving license/utility bill/birth certificate দ্বারা ও একাউন্ট খুলা যাবে।

ব্র্যাক ব্যাংক প্রাতিষ্ঠানিক একাউন্ট খোলার নিয়ম

ব্র্যাক ব্যাংকে প্রতিষ্ঠানিক একাউন্ট খুলার জন্য প্রয়েজনীয় কাজপত্রসমুহ:

প্রাতিষ্ঠানিক একাউন্ট খুলার ক্ষেত্রে আরও কিছু অতিরিক্ত ডকুমেন্টস প্রয়োজন।

১. ট্রেড লাইসেন্স

২. একাউন্ট পরিচালনাকারীর নাম-পদবীসহ সিল।

৩. যৌথ মারিকানাধীন প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে গভারনিং বোর্ডের রেজুলেশন পত্র সাক্ষরসহ।

৪. এছাড়াও লাগতে পারে মেমোরেন্ডাম অব এসোসিয়েশন, প্রইভেট কোম্পনির জন্য কর্পোরেশন সার্টিফিকেট ।

App এর মাধ্যমে ব্র্যাক ব্যাংকে একাউন্ট খুলার নিয়ম

ব্র্যাক ব্যাংকের “স্মার্ট  ওপেনার” মাধ্যমে ঘরে বসেই আপনি ব্র্যাক ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে পারবেন। play stor থেকে এপটি ডাউনলোড করতে হবে। পরে আপনাকে এপটিতে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। খুলার পর আপনি তাদের কাছে রিকুয়েষ্ট পাঠাবেন একাউন্ট খুলার জন্য, ব্যাংক কর্মকর্তারা আপনার বাসায় এসে একাউন্ট খুলে দিয়ে যাবে। তবে আপনাকে ব্র্যাক ব্যাংক কল সেন্টারে ১৬২২১ নাম্বারে ফোন করতে হবে। তবে এ সেভাব প্রাথমিক ভাবে চলতি হিসাব ও সঞ্চয়ী হিসাবের জন্য চালু হয়েছে। আপাতত ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় এ সেভা চালু হয়েছে।

ব্র্যাক ব্যাংক এপ ”স্মার্ট ওপেনার”এ কি কি সেভা পাবেন

১। একাউন্ট খুলা, একাউন্ট পরিবর্তন বা স্থানান্তর করতে পারবেন

২। বিল পরিশোধ করতে পারবেন যেমন পানি বিল, বিদ্যুৎ বিল ইত্যাদি

৩।এটিএম বোথ বা শাখার লোকেশন

৪।বিস্তারিত স্টেটমেন্ট

৫।লেনদেন সংক্রান্ত সকল তথ্য

৬।ঋণ প্রদান ও গ্রহন সম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য।

৭।ক্রেডিট কার্ডের বিল পরিশোধ

৮।একাউন্ট ব্যালেন্স চেক ও

বকেয়া দেনার হিসাব ও পরিশোধ সীমা সম্পর্কিত তথ্য জানতে পারবেন।

Brack Bank official Website visit here

বাংলাদেশের অন্যান্য ব্যাংকে একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে নিচের পোস্ট গুলোতে ভিজিট করুন।

Please Share this article

Leave a Reply