ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২২ | Dutch Bangla Bank Account Opening

You are currently viewing ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২২ | Dutch Bangla Bank Account Opening
ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম বাংলাদেশের যত ব্যাংক রয়েছে তার মধ্যে ডাচ-বাংলা ব্যাংক টি অন্যতম। এই ব্যাংকটি বাংলাদেশের ব্যাংকিং খাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে চলেছে। এই ব্যাংকের মাধ্যমে গ্রাহকরা ঘরে বসেই সব ধরনের কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারছে। এই ব্যাংকটিতে যেকোনো ধরনের লেনদেন খুব নিরাপত্তার সাথে করা যাচ্ছে।

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২২

যারা ডাচ-বাংলা ব্যাংকের গ্রাহক হতে চান তাদেরকে অবশ্যই ডাচ বাংলা ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। ডাচ বাংলা ব্যাংকের একাউন্ট খোলার জন্য প্রথমত আপনাদের একটি ফরম পূরণ করতে হবে।

আপনি ডাচ-বাংলা ব্যাংকের কোন ধরনের একাউন্ট খুলতে চান সেটি আগে সিলেক্ট করে নিতে হবে। তারপরে প্রয়োজনীয় যে সকল ধরনের ডকুমেন্ট লাগবে সেগুলো সংগ্রহ করে নিতে হবে।

সমস্ত ডকুমেন্ট সংগ্রহ করা হয়ে গেলে এবার আপনাকে ফরমটি পূরণ করে নিতে হবে। আপনি যে ব্যক্তির হাত ধরে একাউন্ট খুলতে চান অবশ্যই সেই ব্যক্তিকে নিয়ে যাবেন তাহলে আপনার কাজটি খুবই দ্রুততার সাথে হবে।

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

ডাচ বাংলা একাউন্ট খুলতে যা যা লাগবে

ডাচ বাংলা একাউন্ট খুলতে কি কি লাগে এই সম্পর্কে অনেকেই প্রশ্ন করে থাকেন। সাধারণত আপনারা ডাচ বাংলা একাউন্ট দুইভাবে খুলতে পারবেন।দুই উপায়ে খুব ভালোভাবেই ডাচ বাংলা একাউন্ট খোলা সম্ভব।ডাচ বাংলা তে যে দুই ধরনের একাউন্ট খোলা যায় তার নিচে দেওয়া হলোঃ

  1. ➡️ ডাচ বাংলা ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট
  2. ➡️ ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট

ডাচ বাংলা ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট

ছাত্রছাত্রীরা যে একাউন্ট খুলতে চান ডাচ বাংলা ব্যাংকের মাধ্যমে সেটিকে ডাচ বাংলা ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট বলা হয়ে থাকে। এই অ্যাকাউন্টটি শুধুমাত্র ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য খুলে দেওয়া হয়। ছাত্র-ছাত্রীরা প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট দিয়ে খুব সহজেই ডাচ বাংলা ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট খুলতে পারবেন।

Dutch bangla bank savings account?

ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট

ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট চাইলে যেকোনো ধরনের লোক খুলতে পারবেন। এই একাউন্টের মাধ্যমে আপনারা যে কোন ধরনের লেনদেন করতে পারবেন। নির্দিষ্ট কিছু ডকুমেন্ট কর্তৃপক্ষকে বুঝিয়ে দেওয়ার মাধ্যমে এই অ্যাকাউন্টটি খুব সহজেই করা সম্ভব।

এই দুই ধরনের অ্যাকাউন্ট তৈরি করার জন্য আপনাকে বিভিন্ন ধরনের ডকুমেন্ট তাদেরকে দিতে হবে। তারপরে আপনারা চাইলে একাউন্ট খোলার কাজটি সঠিকভাবে সম্পাদন করতে পারবেন।

Dutch Bangla Bank Account Khulte ki ki lage?

ডাচ বাংলা ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট

ডাচ বাংলা ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার জন্য যে ধরনের ডকুমেন্ট লাগবে সেগুলো নিচে উল্লেখ করা হলো ।

➡️ দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ফটো লাগবে

➡️ যদি ব্যবসায়ী হয়ে থাকেন তাহলে যেকোনো ধরনের ট্রেড লাইসেন্স এর ফটোকপি দেওয়া লাগবে।

➡️ ভোটার আইডি কার্ড থাকলে ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি দেওয়া লাগবে।

➡️ যা কেনো মেনে করতে চান তার ১ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি এবং তার ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি দেওয়া লাগবে।

➡️ যে ব্যক্তি রেফারেন্স হবে তার এনআইডি কার্ডের ফটোকপি এবং তার একটি পাসপোর্ট সাইজের ফটো লাগবে।

আপনারা যদি এই সমস্ত ডকুমেন্ট গুলো সংগ্রহ করে ডাচ-বাংলা ব্যাংকের শাখায় যোগাযোগ করেন তাহলে খুব সহজেই ডাচ বাংলা ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট খুলতে পারবেন।

ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট খোলার জন্য প্রয়োজনীয় ডুকুমেন্ট

ডাচ বাংলা ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার জন্য আপনাদেরকে যেমন কিছু ডকুমেন্টের প্রয়োজন হচ্ছে তেমনি ডাচ-বাংলা ব্যাংকের সেভিংস একাউন্ট খোলার জন্য কিছু ডকুমেন্ট প্রয়োজন হবে।ডাচ বাংলা ব্যাংকের সেভিংস একাউন্ট খোলার জন্য যে ধরনের ডকুমেন্ট লাগবে:-

➡️ যে ব্যক্তি অ্যাকাউন্ট খুলতে চাইবে তার দুই কপি  পাসপোর্ট সাইজের ছবি লাগবে।

➡️ ব্যবসায়িক হয়ে থাকলে ট্রেড লাইসেন্স এর ফটোকপি দিতে হবে।

➡️ ভোটার আইডি কার্ডেরপাসপোর্ট ফটোকপি দিতে হবে।

➡️ যাকে নমিনি করতে চান তার ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি এবং তার এক কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি লাগবে।

➡️ রেফারেন্স হিসেবে যে ব্যক্তিকে নির্বাচন করতে চান তার এনআইডি কার্ডের ফটোকপি এবং তার এক কপি ছবি লাগবে।

আপনারা এই সমস্ত ডকুমেন্ট গুলো সংগ্রহ করে খুব সহজেই ডাচ-বাংলা ব্যাংকের শাখায় গিয়ে একটি সেভিংস একাউন্ট আপনার নামে তৈরি করে ফেলতে পারবেন।

ডাচ বাংলা ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট করা কতটা নিরাপদ

বর্তমান সময়ে বাংলাদেশে যত ব্যাংক রয়েছে তার মধ্যে ডাচ বাংলা ব্যাংক টি হচ্ছে খুবই জনপ্রিয় একটি ব্যাংক। এই ব্যাংকটি দীর্ঘদিন ধরে তাদের কাস্টমারদের কে বিভিন্ন ধরনের সুবিধা দিয়ে আসছে।

তাছাড়া ডাচ-বাংলা ব্যাংক সর্বপ্রথম বাংলাদেশের ডিজিটাল পদ্ধতিতে লেনদেন করার কার্য পদ্ধতি শুরু করে। ডাচ বাংলা ব্যাংক এমন একটি ব্যাংক যার মাধ্যমে খুব সহজেই যেকোন ধরনের লেনদেন সম্পন্ন করা সম্ভব।

তাছাড়া ডাচ-বাংলা ব্যাংকের বিভিন্ন ধরনের কার্ড দেওয়া হয়ে থাকে যে কাজগুলো ব্যবহার করে আপনারা যে কোন স্থানে খুব সহজেই নির্ভয় লেনদেন করতে পারবেন। তাই বর্তমান সময়ে যদি জিজ্ঞেস করেন যে ডাচ বাংলা ব্যাংকে লেনদেন করা কতটুকু নিরাপদ তাহলে এর উত্তর হবে আপনারা নির্ভয় ডাচ বাংলা ব্যাংকে লেনদেন করতে পারেন এবং এটি 100% নিরাপদ।

Dutch-bangla Bank Online account check:

ডাচ বাংলা ব্যাংকের ব্যালেন্স চেক কিভাবে করবেন

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট ব্যালেন্স চেক কিভাবে করবেন এবার আমি আপনাদেরকে সে সম্পর্কে বলবো । যারা ডাচ বাংলা ব্যাংকের ব্যবহারকারী রয়েছে তারা চাইলে তিনটি পদ্ধতি অবলম্বন করে খুব সহজেই ডাচ বাংলা ব্যাংকের ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন।

  1. এটিএম বুথের মাধ্যমে
  2. ডাচ বাংলার মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস এর মাধ্যমে
  3. ডাচ বাংলা ইন্টারনেট ব্যাংকিং একাউন্ট

এটিএম বুথের মাধ্যমে

যারা ডাচ বাংলা ব্যাংকের ব্যবহারকারী রয়েছে তারা চাইলে এখান থেকে নেক্সাস পে এক ধরনের কার্ড রয়েছে সেটি নিতে পারেন। তারপরে আপনাকে এই কার্ড এটিএম বুথের মাধ্যমে লোড করতে হবে।

তারপরে আপনার একাউন্টের পাসওয়ার্ড দিতে হবে এবং পাসওয়ার্ড দেওয়ার পর এক্সেস নিতে হবে। আপনার যখন পাসওয়ার্ড দেয়া হয়ে যাবে তখন এটিএম বুথের বাম পাশে থাকা ব্যালেন্স স্টেটমেন্ট এর বাটনে ক্লিক করতে হবে।ক্লিক করার সাথে সাথে আপনি নিজের একাউন্টের ব্যালেন্স এর স্টেটমেন্ট দেখতে পারবেন।তাহলে এই পদ্ধতি অবলম্বন করে খুব সহজেই ডাচ বাংলা ব্যাংকের ব্যালেন্স চেক করা যাবে।

২.ডাচ বাংলার মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাপস এর মাধ্যমে

আপনারা প্লে স্টোরে গেলে নেক্সাস পে নামক এক ধরনের অ্যাপ দেখতে পারবেন সেই অ্যাপটিকে ডাউনলোড করে নিতে হবে। অ্যাপটি ডাউনলোড করা হয়ে গেলে ব্যাংক স্টেটমেন্ট এর যাবতীয় তথ্য দিয়ে অ্যাকাউন্টটি খুলে ফেলতে হবে।

অ্যাপটি খোলা হয়ে গেলে পরবর্তীতে আপনি এই অ্যাপের মাধ্যমে পাসওয়ার্ড এবং ব্যাংক নাম্বার দিয়ে খুব সহজেই আপনার একাউন্ট ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন।

৩.ডাচ বাংলা ইন্টারনেট ব্যাংকিং একাউন্ট

আপনাকে এই পদ্ধতি একাউন্ট ব্যালেন্স চেক করতে হলে ইন্টারনেট ব্যাংকিং একাউন্ট খুলতে হবে। তারপরে প্রয়োজনীয় যে সকল ধরনের তথ্য সেখানে চাইবে এই তথ্যগুলো দেয়ার মাধ্যমে খুব সহজেই আপনারা ইন্টারনেট ব্যাংকিং একাউন্ট এর ব্যালেন্স দেখতে পারবেন।

ডাচ বাংলা ব্যাংকে একাউন্ট তৈরি করার সুবিধা

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট তৈরি করার মাধ্যমে আপনারা বিভিন্ন ধরনের সুবিধা খুব সহজেই পেয়ে যাবেন।ডাচ বাংলা ব্যাংকের মাধ্যমে আপনারা যে কোন ধরনের লেনদেন খুব কম চার্জ এর মাধ্যমে করতে পারবেন।

তাছাড়া এখান থেকে আপনারা বিভিন্ন ধরনের কার্ড পেয়ে যাবেন যে কার্ড গুলোর মাধ্যমে বিভিন্ন দেশে খুব সহজেই পেমেন্ট করতে পারবেন। তাছাড়া ডাচ-বাংলা ব্যাংকে বিভিন্ন ধরনের ডিপিএস খোলার সুযোগ রয়েছে যার মাধ্যমে আপনার জমাকৃত টাকার ওপর মুনাফা আপনি পেয়ে যাচ্ছেন। তাই আপনারা চাইলে এই সকল সুবিধাগুলোর জন্য ডাচ বাংলা ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারেন।

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট কোড

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট কোড: বাংলাদেশ ডাচ বাংলা মোবাইল ব্যাংকিং কোড হচ্ছে *322# ডায়াল করে আপনি ব্যালেন্স অনুসন্ধান অপশন সিলেক্ট করে আপনার পিন নাম্বার দিলে আপনি ডাচ বাংলা ব্যাংকের একাউন্ট ব্যালেন্স জানা যাবে।

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার অনলাইন ফরম আপনি চাইলে ডাউনলোডের করে পূরণ করতে পারবেন পরে সবকিছু সঠিকভাবে পূরণ করে ডাচ বাংলা ব্যাংকে জমা দিয়ে দিবেন। Dutch Bangla Bank Account Opening form

আমাদের শেষ কথা:

বর্তমান সময়ে যেকোন ধরনের লোক খুব সহজেই ডাচ-বাংলা ব্যাংকের মাধ্যমে তাদের একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করে নিতে পারেন। ডাচ বাংলা ব্যাংকের বিভিন্ন ধরনের সুবিধার কারণে অনেকে এখন এই ব্যাংকে একাউন্ট করার কথা ভাবছেন এবং তৈরি করছেন। তাই নির্বিঘ্নে যদি সব ধরনের লেনদেন করতে চান এবং আপনার জমাকৃত টাকা নিরাপদে রাখতে চান তাহলে ডাচ বাংলা ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পারেন।

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন আমাদের এই পোস্টে

আশা করি আজকের পোস্ট এর মাধ্যমে আপনারা ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে ভালোভাবে জানতে পেরেছেন।তার পরেও যদি কোন বিষয়ে প্রশ্ন থেকে থাকে আমাদেরকে কমেন্ট করে জানাতে পারেন ।

Leave a Reply