You are currently viewing সিটি ব্যাংক লোন পদ্ধতি | City Bank Loan System

সিটি ব্যাংক লোন পদ্ধতি | City Bank Loan System

সিটি ব্যাংক লোন পদ্ধতি: আপনি যদি সিটি ব্যাংকের গ্রাহক হয়ে থাকেন। তাহলে আপনার জন্য খুব জরুরি হলো সিটি ব্যাংকের লোন পদ্ধতি জানা। কেননা সিটি ব্যাংকের লোন পদ্বতি খুব সহজ। এবং তাতে রয়েছে বহু সুবিধা।

Table of Contents

সিটি ব্যাংক ও তার প্রতিষ্টা।

সিটি ব্যাংক  বাংলাদেশের একটি বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক।  সিটি ব্যাংক আনুষ্ঠানিকাবে কার্যক্রম  শুরু করে ১৯৮৩ সালের ২৭ মার্চ।ব্যাংকটি ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ-এ নিবন্ধিত একটি প্রসিদ্ধ ব্যাংক।

সিটি ব্যাংক লোন

সিটি ব্যাংকে শাখা ও বুথ।

  • বর্তমানে গোটা দেশে সিটি ব্যাংকের মোট 130 টি শাখা রয়েছে।
  • 389 টি এটিএম আছে।
  • এটিএম কার্ডের সংখ্যা প্রায় ১০ লাখের অধিক।

লোন নেয়ার ফিচারস

সিটি ব্যাংকের অন্যান্য লোন সম্পর্কে জানা প্রয়োজন। কিন্তু তার আগে জেনে নেই তার গড় ফেচার।

  • আপনি সর্বনিম্ন ৩ লক্ষ টাকা নিতে পারবেন।
  • সর্বোচ্চ ৪০ লক্ষ টাকা দিতে পারবেন।
  • এছাড়াও যানবাহন করার ক্ষেত্রে সর্বমোট টাকার ৫০% আপনি তাদের থেকে নিতে পারবেন।
  • লোন পরিশোধ করতে হবে সর্বনিম্ন ১২ মাস থেকে সর্বোচ্চ ৭২ মাসের মধ্যে।
  • এই লোন নেয়ার ক্ষেত্রে কোনো রকমের হিডেন চার্জ নেই।

সিটি ব্যাংকের লোনের ক্ষেত্রসমূহ।

সিটি ব্যাংকের ৪ ধরণের লোন পদ্ধতি রয়েছে। সিটি ব্যাংকের চারটি লোন নিচে দেখুন।

  • অটো লোন।
  • পার্সোনাল লোন।
  • হোম লোন।
  • সিটি বাইক লোন।

বিভিন্ন ক্যাটাগরির গ্রাহকগণ সিটি ব্যাংক থেকে চার প্রকারের ঋণ নিতে পারেন। একেক ধরণের লোনের জন্য রয়েছে একেক সুবিধা। ভিন্ন ধরনে রিকোয়ারমেন্ট রয়েছে।

সিটি ব্যাংক হোম ঋণ। City Bank Home loan.

মানুষ অ্যাপার্টমেন্ট ও বাড়ি কিনতে চায়। এটা মানুষের একটা স্বপ্ন। সিটি ব্যাংক এ স্বপ্ন পূরণে কাজ করে যাচ্ছে। গ্রাহকদের ঋণ সুবিধা দিতে সিটি ব্যাংক City Bank নিয়ে এসেছে ‘সিটি হোম লোন’ সার্ভিস।

সিটি ব্যাংক হোম লোন ফেচার্স।Home loan Facilities.

  • সর্বনিম্ন ৫ লক্ষ টাকা।
  • সর্বোচ্চ ২ কোটি টাকা পর্যন্ত লোন নেওয়া যাবে।
  • ১ বছর থেকে ২৫ পর্যন্ত city bank এর লোন পরিশোধ করা যাবে।
  • তুলনামূলক ইন্টারেস্ট রেট।

Home loan এর যোগ্যতা।

City Bank Home loan পেতে হলে আপনার কিছু যোগ্যতা থাকতে পাবে। সে যোগ্যতা কি, তা জানতে নিচে চোখ রাখুন;

  • ঋণ গ্রহীতার সর্বনিম্ন বয়স ২২ বছর হতে হবে।
  • সর্বোচ্চ বয়স ৬৫ হতে হবে।
  • দক্ষতার ক্ষেত্রে যেমকেন কাজে তিন বছরের দক্ষতা থাকতে হবে।
  • সরকারি চাকুরিজীবীর ক্ষেত্রে মাসিক বেতন ৩০ হাজার হতে হবে।
  • বেসরকারি চাকুরিজীবীর ক্ষেত্রে মাসিক বেতন ৫০ হাজার হতে হবে।

উপরের শর্ত মোতাবেক যদি আপনি ঋণ যদি আপনি লোন নিতে চান, তাহলে নিকটস্হ সিটি ব্যংক শাখায় যোগাযোগ করুন। কি কি কাগক পত্র লাগবে তারা আপনাকে বুঝিয়ে দিবে।

সিটি ব্যাংক পারসোনাল লোন।

লোন নেওয়ার যোগ্যতা :

  • যিনি ঋণ নিতে চান তাকে প্রাপ্ত বয়স্ক হতে হবে।
  • কমপক্ষে ২২ হতে ৬০ এর মাঝে বয়স হতে হবে।
  • ঋণ গ্রহণের জন‍্য মাসিক ইনকাম হতে হবে সর্বনিম্ন:
  1. চাকুরীজীবিদের জন‍্য : ২০,০০০ টাকা
  2. বাড়িওয়ালার জন‍্য : ৩০,০০০ টাকা
  3. চিকিৎসক, প্রকৌশলী, হিসাবরক্ষক, স্থপতি ইত‍্যাদি : ৫০,০০০ টাকা
  4. ব‍্যবসায়ীদের জন‍্য : ৫০,০০০ টাকা

সিটি ব্যাংক লোনের পরিমাণ Personal Loan

  • সর্বনিম্ন  ১ লাখ লোন দেওয়া হয়।
  • সর্বোচ্চ ২০ লক্ষ লোন প্রদান করা হয়

সিটি ব্যাংক লোনের সুবিধা সূমহ :

  • কোন প্রক্রিয়া করণ ফি ২% ।
  • লোন টেক ওভার সুবিধা প্রসেসিং ফি ছাড়া।
    ঋণ পরিশোধের সময় ১২ হতে ৬০ মাস ।দেশের যেকোন স্হান হতে লোন গ্রহণ ও কিস্তি পরিশােধ করা যায় ।

সিটি ব্যাংক ঋণ পরিশােধের নিয়মঃ

মাসিক কিস্তি ।

সুদের হার সর্বোচ্চ ৯% থেকে ১২% হয়ে থাকে । ( Interest Rate )

আবেদন গ্রহন করতে কত দিন লাগবে :

  • সদ‍্য তোলা ১ কপি পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবি।
  • ভোটার আইডি বা পাসপোর্ট এর ফটোকপি
  • চাকুরীজীবিদের জন‍্য অফিসের পরিচয় পত্র
  • ভিজিটিং কার্ড প্রয়োজন ।
  • চাকুরীজীবি প্রার্থীদের চাকুরির ১ বছরের অভিঙ্গতা একটি প্রতিষ্ঠানে হতে হবে ।

প্রকৌশলী, হিসাবরক্ষক, ডাক্তার স্থপতি।

  • অভিঙ্গতা ২ বছর ।
  • ব্যবসায়ীদের ট্রেড লাইসেন্স
  • ব্যবসায় সর্বনিম্ন ৩ বছরের অভিজ্ঞতা ।
  • ৬ বা ১২ মাসের ব্যাংক স্টেটমেন্ট ।
  • পার্সোনাল নোমোনি ২ জন ।
  • খারাপ সিআইবি এবং কর্পোরেট রিপোর্ট  থাকলে লোন পাবেন না ।

সিটি ব্যাংক অটো লোন City Bank

সিটি ব্যাংকের লোন পদ্ধতির অন্যতম পদ্ধতি অটো লোন পদ্ধতি।  সিটি ব্যাংকের অটো লোন রিকোয়ারমেন্ট পূরণ করলেই আপনি সর্বোচ্চ ৪০ লক্ষ টাকা লোনমপেয়ে যাবেন। তাই জেনে নেওয়া যাক সিটি ব্যাংকের অটো লোন যোগ্যতা ও প্রয়োজনীয় তথ্য।

সিটি ব্যাংক অটো লোনের সুবিধা।

  • সর্বনিম্ন তিন লক্ষ টাকা।
  • সর্বোচ্চ ৪০ লক্ষ টাকা লোন নেওয়া যাবে।
  • যানবাহনের ক্ষেত্রে পণ্যের ৫০% ঋণ নেওয়া যাবে।
  • ক্যাশ সিকিউরিটি এর বিনিময়ে ১০০%  লোন নেওয়া যাবে।
  • পরিশোধের সময়সীমা ১২ থেকে ৭২ মাস।
  • হাইডেন চার্জ নেই।

সিটি ব্যাংকের অটো লোনের যোগ্যতা।

সিটি ব্যাংক থেকে অটো লোন নিতে হলে আপনার লোনের নেবার জন্য কিছু যোগ্যতা লাগবে। যেসব যোগ্যতা লাগবে তা জানতে পড়ুন।

  • বয়স সর্বনিম্ন ২২বছর।
  • সর্বোচ্চ ৬৫ বছর হতে হবে।
  • চাকরির ক্ষেত্রে কমপক্ষে ১ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
  • মাসিক কমপক্ষে ৪০ হাজার হতে হবে।
  • টাকার অংকে তা অনেক বেশি।
  • কোনো গ্যারান্টির প্রয়োজন নেই।
  • ইন্টারেস্ট হলো প্রতিযোগিতা মূলক।

সিটি ব্যাংক বাইক লোন Bike Loan

City Bank  এর লোন প্যাকেজের মধ্যে অন্যতম হলো বাইক লোন। বাইক লোন থেকে আপনি সর্বোচ্চ ১০ লক্ষ টাকা লোন নিতে পারবেন। কিন্তু তার জন্য আপনাকে তাদের শর্তানুযায়ী উপযুক্ত হতে হবে। কি কি শর্ত থাকলে তারা বাইক লোন দেয়, আপনাদের সুবিধার্তে নিচে আলোচনা করা হলো।

সিটি বাইক লোনের সুবিধা।

  • সর্বোচ্চ ১০ লক্ষ টাকার লোন লোন সুবিধা।
  • পুরুষের ক্ষেত্রে  রেজিষ্ট্রেশন সহ ৮০%.
  • মহিলারনজন্য ১০০%।
  • ঋন পরিশোধের সময়কাল ৬ মাস থেকে ৩ বছর।
  • মহিলার জন্য বিশেষ ইন্টারেস্ট রেইট।
  • মাহিলার জন্য কোন প্রসেসিং ফি নেই।
  • শুধু একটি নয়, একাধিক বাইক কিনার সুবিধা আছে।
  • FDR এর ক্ষেত্রে ৯০% লোন দেওয়য়া হয়।

বাইক লোনের যোগ্যতা।

  • লোন নেবার ক্ষেত্রে ২০ থেকে ৬৫ বছর হতে হবে।
  • কমপক্ষে ২১ বছরের বেতনভোগী হতে হবে।
  • ব্যবসায়ী ও চাকুরিজীবরর ক্ষেত্রে কমপক্ষে এক বছরের কাজের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।
  • রাইড সিয়ারের ক্ষেত্রে ৬ মাসের অভিজ্ঞতা।
  • প্রবাসীর ক্ষেত্রেও ৬ মাসের অভিজ্ঞতা। Bike loan details

মাসিক আয় City Bank

  • প্রবাসীর জন্য ২৫ হাজার।
  • রাইড শিয়ারিং এর ক্ষেত্তে ১৫,০০০
  • ব্যাংকে বেতন পাওয়া কর্মকর্তার ১৫০০০০
  • ক্যাশে বেতন পাওয়ার ক্ষেত্রে ২০০০০ হাজার।

আশাকরি সিটি ব্যাংক লোন পদ্ধতি সম্পর্কে জানতে পেরেছেন।

অন্যান্য ব্যাংকে লোন নেওয়ার পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ভিজিট করুন নিচের লিংক গুলোতে।

Please Share this article

Leave a Reply