You are currently viewing সৌদি আরব ভিসা চেক করার নিয়ম | Saudi Arabia Visa Check

সৌদি আরব ভিসা চেক করার নিয়ম | Saudi Arabia Visa Check

সৌদি আরব ভিসা চেক সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ তথ্যঃ আশা করি আপনারা সবাই ভাল আছেন। আজকে আপনাদের সামনে আবার একটি নতুন আটিকেল নিয়ে হাজির হলাম। আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করব সৌদি আরব এবং দুবাই ভিসা সম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয় নিয়ে।

তো আপনাদের এই জন্য আমাদের সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি বিস্তারিত মনোযোগ সহকারে পড়তে হবে। তাহলে আপনারা সৌদি আরব ভিসা সংক্রান্ত বিষয়ে যে ধরনের সমস্যায় পড়ে থাকেন সেই সমস্যাগুলো সমাধান খুব সহজেই করতে পারবেন।তাহলে চলুন প্রথমে জেনে নেওয়া যাক সৌদি আরব ভিসা চেকিং কিভাবে করবেন সেই সম্পর্কেঃ

সৌদি আরব ভিসা চেকিং কিভাবে করবেন

যারা সাধারণত সৌদি আরব যাবেন বলে ঠিক করে থাকেন তাদের অনেক সময় সৌদি ভিসা চেক করতে হয়। এইজন্য তারা অনলাইনে বিভিন্ন উপায় খুঁজে থাকেন তাদের ভিসাটি বৈধভাবে চেক করার জন্য।

আমি আপনাদেরকে যে উপায়গুলো বলবো আপনারা এই উপায় গুলো অবলম্বন করে খুব সহজে অনলাইনের মাধ্যমে আপনারা আপনাদের সৌদি ভিসা চেক করতে পারবেন।

সৌদি আরব ভিসা চেক প্রথম ধাপ

আপনি খুব সহজেই আপনার পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে অনলাইনের মাধ্যমে আপনার ভিসাটি চেক করে নিতে পারবেন। তাহলে চলুন দেরী না করে জেনে নেওয়া যাক সৌদি আরব ভিসা চেক করার নিয়ম সম্পর্কেঃ

১. প্রথমে আপনাকে এর জন্য গুগলের সার্চ বক্সে enjazit.com.sa লিখে সার্চ করতে হবে। অথবা এখানে ক্লিক করে ভিজিট করুন

সৌদি আরব ভিসা চেক করার ২য় ধাপ

২.তারপর আপনি নিচের চিত্রের মত এমন একটি সৌদি ভাষার ওয়েবসাইট দেখতে পারবেন।

 

সৌদি আরব ভিসা

তারপর আপনি এখানে যে ওয়েবসাইটটা দেখতে পাচ্ছেন এই ওয়েবসাইটের লিঙ্ক এ প্রবেশ করে সরাসরি ওয়েবসাইটে চলে যেতে হবে। আপনি মূলত এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনার সৌদি ভিসা ঠিক আছে কিনা সেটা খুব সহজেই চেক করতে পারবেন।

সৌদি ভিসা চেকিং করার ৩য় ধাপ

৩. আপনি যখন ওয়েবসাইটে ঢুকবেন তখন যদি ওয়েবসাইটে কোন পপ আপ আসে সেটি কেটে দিতে হবে।

Saudi Arabia Visa Check ৪র্থ ধাপ

৪. আপনি যখন ওই ওয়েবসাইটের মধ্যে ঢুকবে তখন দেখতে পারবেন individuals এবং sector and organzation নামে আপনি এখানে দুইটি অপশন দেখতে পারবেন।

সৌদি আরব ভিসা

আরবি যদি বুঝে না আসে তাহলে গুগল ট্রান্সলেটর অপেন করে নিবেন। নিচের পেইজের মত হয়ে চলে আসবে।

সৌদি আরব ভিসা

না হয় আপনি কপি করে ট্রান্সলেট করে নিবেন। ট্রান্সলেট কিভাবে করবেন পড়ুন

তারপর আপনি individual অপশনটিতে ক্লিক করার মাধ্যমে সরাসরি ঢুকে যান।

সৌদি আরব ভিসা চেক ৫ম ধাপ

৫.তারপর individual পেজে আসার পর আপনি সেখানে অনেকগুলো অপশন পাবেন।আপনি এখানে find appliciant data এই অপশনটি খুজে বের করে ক্লিক করে ভেতরে ঢুকে পড়ুন।

সৌদি ভিসা চেকিং করার ৬ষ্ট ধাপ

৬. তারপর আপনি find appliciant data ডাটাবেজে আসার পথ দেখতে পারবেন পেজের উপরের দিকে ভিসা সার্ভিস প্ল্যাটফর্ম enjaz লেখা আছে। এবং তার নিচে আপনি দেখতে পারবেন find appliciant data বলে আরেকটি ফর্ম।

Saudi Arabia Visa Check ৭ম ধাপ

৭. তারপর আপনি এই ফর্মের ভিতরে আপনার পাসপোর্ট নাম্বার, নেশনালিটি, বাংলাদেশ ভিসা, টাইপ, ওয়ার্ক ভিসা ইনসুইং অথরিটি সবকিছু লিখে পাশে থাকা ইমেজ কোডটি সুন্দর করে কপি করে অবশ্যই সার্চ বাটনে ক্লিক করুন।

এবার আপনি যদি সবকিছু ঠিকঠাক করে বসাতে পারেন তাহলে আপনার ভিসার যাবতীয় তথ্য খুব সহজেই এখান থেকে দেখতে পারবেন।

তারপর এখানে আপনি আপনার নাম ছবি এবং স্পন্সর এর নাম সব তথ্য সঠিকভাবে আপনাকে মিলিয়ে নিতে হবে। আরেকটি বিষয় আপনাকে সকল সময় মাথায় রাখতে হবে সেটি হচ্ছে আপনি যদি আপনার ভিসায় স্পন্সর এর নাম না পান তাহলে আপনার ভিসাটি হয়নি।

সৌদি আরবের ভিসা প্রসেসিং খরচ কত?

আপনারা তো এতোক্ষণ জানলেন কিভাবে অনলাইনে সৌদি ভিসা চেক করতে হয় সে সম্পর্কে জানবেন সৌদি ভিসা প্রসেস এর খরচ সম্পর্কে। নিচে আমরা সৌদি ভিসা প্রসেসিং এর সম্পূর্ণ খরচ সম্পর্কে আপনাদেরকে বিস্তারিত বলবোঃ

  1. আমেল মঞ্জিিলি ভিসা প্রসেসিং মেডিকেলসহ ১,২৫,০০০/= টাকা এয়ার টিকিট সহ। তাছাড়া হাউস ড্রাইভারের ভিসা প্রসেসিং মেডিকেল সহ ১,৫৫,০০০ টাকা। আপনারা চাইলে এই ক্ষেত্রে লাইসেন্স সহ নিতে পারবেন।
  2. আমেল ভিসা এবং ফ্রি ভিসা, কোম্পানি ভিসা, প্রসেসিং এবং মেডিকেলসহ খরচ ৬০ হাজার টাকা হতে পারে। আপনারা চাইলে ৬০ হাজার টাকার মধ্যে এখানে পেয়ে যাবেন।
  3. আমেল ভিসা দলিয় ও নাজরান প্রসেসিংমেডিক্যাল সহ-(৭০০০০/=) এয়ার টিকিট।
  4. ফ্যামিলি ভিসা প্রসেসিং খরচ মোট :(৬০,০০০/=টাকা।)
  5. খাদ্দামা ভিসা:১,৫৫,০০০/=তাছাড়া খুব দ্রুত সময়ে ভিসা ইস্টেমপিং ও প্রসেসিং করা হয়ে থাকে।

সৌদি আরবের ভিসা নিয়ে আমাদের শেষ কথা

আমরা অনেকেই ভিসা চেক করার জন্য বিভিন্ন দোকানে যাই এবং সেসব দোকানে কিছু টাকা দেয়ার মাধ্যমে ভিসা চেক করতে বলি। তারা আমাদেরকে নির্দিষ্ট কিছু টাকা চার্জ করার মাধ্যমে বিষয়টি ঠিক আছে কিনা সেই সম্পর্কে বলে।

কিন্তু আপনারা চাইলে ঘরে বসেই আপনার ভিসাটি বৈধ কিনা অবৈধ বা আপনার ভিসাটি এসেছে কিনা এটা আপনারা ঘরে বসে বিনা খরচে করতে পারবেন শুধুমাত্র অনলাইনের মাধ্যমে।

আমি আপনাদেরকে আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে সৌদি আরবের ভিসা চেক এবং দুবাই ভিসা চেক এর সম্পর্কে কিছু ধারনা দেয়ার চেষ্টা করেছে। তারপরও যদি কোন বিষয় বুঝতে আপনাদের অসুবিধা হয়ে থাকে তাহলে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

Leave a Reply