বিসিএস ছাড়া সব সরকারি চাকরিতে বয়সের ৩৯ মাস ছাড়

You are currently viewing বিসিএস ছাড়া সব সরকারি চাকরিতে বয়সের ৩৯ মাস ছাড়
বিসিএস ছাড়া সব সরকারি চাকরিতে বয়সের ৩৯ মাস ছাড়

” নিশ্চয় আমি তোমাদের পরীক্ষা করব কিছু ভয়, কিছু ক্ষুধা, দিয়ে , ধনসম্পদ জীবন ও ফল ফসলের ক্ষয়ক্ষতি দিয়ে আর তারাই সফল হবে যারা ধৈর্য্যের সাথে অধ্যবসাই”সূরা বাকারা।

বিসিএস ছাড়া সব সরকারি চাকরিতে বয়সের ৩৯ মাস ছাড়?

সুপ্রিয় ভাইও বোনেরা আপনারা নিশ্চয় জেনে অনেক খুশি হবেন যে সরকার আমাদের এবং আপনাদের সবার জন্য চাকরির আবেদন করার সুযোগ দিয়েছেন কেবল মাত্র বিসিএস ছাড়া। অর্থাৎ সরকারি চাকরিতে বয়সের ছাড় দিয়েছেন ৩৯মাস। হয়তো অনেকেই আমরা আশাই ছেড়ে দিয়েছিলাম যে আর হয়তো সরকারি চাকরি করতে পারতাম না কিন্তু এই নিরাশা আজ আশায় রূপ নিয়েছে। অর্থাৎ বিসিএস ছাড়া সব সরকারি চাকরিতে বয়সের ছাড় দেয়া হয়েছে। বিস্তারিত আপনাদের সাথে শেয়ার করলাম

  • করোনা পরিস্থিতির কারণে বিসিএস ছাড়া সব সরকারি চাকরিতে বয়সের ছাড়।
  • সরকারি চাকরিতে বয়সের ছাড় পেয়েছেন ৩৯ মাস।

সরকারি চাকরি প্রত্যাশী ভাই ও বোনেরা বয়সের ছাড় পেলেন ৩৯ মাস ।জন প্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে এ নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। সরাসরি চাকরিতে যাদের বয়সীমা ২০২০ সালের ২৫ শে মার্চ এ শেষ হয়েছে করোনা পরিস্থিতির কারনে তারা ২০২৩ সালে ৩০ শে জুন পর্যন্ত বিসিএস ব্যতিত সব সরকারি চাকরিতে আবেদন করতে পারবেন।এর আগে করোনা পরিস্থিতির কারনে দুই দফায় সরকারি চাকরিজীবীদের বয়সের ছাড় দেয়া হয়েছিল।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের থেকে জানানো হয়েছে সেসময় ২১ মাস ছাড় দেয়া হয়েছিল।তবে দুই দফায় যে ছাড় দেয়া হয়েছিল তা হল :

  • প্রথম দফায় ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর এ যাদের বয়স ৩০ পেরেয়েছিল তাদেরকে ৫ মাস ছাড় দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন ।
  • দ্বিতীয় দফায় ২০২১ সালের ১৯ আগষ্ট চাকরিপ্রত্যাশীদের বয়সের ছাড় ২১ মাস দেয়া হয়েছিল
  • তবে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের থেকে সেসব মোট ২১ মাস দেয়া হয়েছিল।

এমপিওভুক্ত হচ্ছেন ৩৫৪৯ জন শিক্ষক ও কর্মচারী

সরকারি চাকরিতে ৩৯ মাস ছাড় দেয়া হয়েছে বিসিএস ছাড়া।

চাকরি প্রাপ্তদের এটা একটা বড় সুযোগ এবং সুখবর।তবে চাকরি বয়সসীমা যে ৩৫ এর দাবি এটা বাস্তবায়ন করা হবে না। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেছেন চাকরিপ্রত্যাশিরা অনেকেই তারা বয়স হারিয়েছেন,করোনা পরিস্থিতির কারনে অনেক ই অনেক সমস্যায় ভোগছিলেন ।তাদের সুবিধার জন্য আমরা এসব পরিকল্পনা নিয়েছি ।এটা হচ্ছে তাদের একটা বড় সুযোগ।

বিসিএস ছাড়া এই আদেশ বাস্তবায়নের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

অর্থাৎ বিসিএস ছাড়া সব সরকারি চাকরিতে আবেদন করতে পারবেন। সরকারি চাকরির বয়সসীমা ৩৯ মাস ছাড় ।২০২০ এর ২৫ মার্চ বয়স শেষ হলেও আবেদন করতে পারবেন।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেছেন, আমরা ৩৫ বছর চাকরির বয়স করতে পারছিনা। আমরা চাই ৩০ বছরের যারা young তারাই কিন্তু চাকরিতে বড় একটা অবদান রাখতে পারবে।

বয়স কর্মক্ষমতা ,কর্মসীমা ইত্যাদি বিবেচনা করেই আমরা বয়সসীমা ৩০ করছি নীতিমালায়

বয়স ৩৯ ছাড় এর নির্দেশনা:

বৃহস্পতিবার ২২ সেপ্টেম্বর জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে বয়স ৩৯ ছাড় সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য সব মন্ত্রনালয় থেকে বিভাগ এর সচিব ও সিনিয়র সচিবকে অনুরোধ করা হয়েছে। নির্দেশনায় বলা হয়েছে যেসলক মন্ত্রনালয় বিভাগ ও এর অধীনে অধিদপ্তর ,পরিদপ্তর এবং জাতীয়কৃত প্রতিষ্ঠান সমূহ বিভিন্ন ক্যাটাগরির সরকারি চাকরিতে সরাসরি নিয়োগ এর লক্ষ্যে কোভিড- ১৯ পরিস্থিতির কারনে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে নি সে সকল দপ্তর প্রতিষ্ঠান এর ২০২৩ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখিত পদে আবেদন এর ক্ষেত্রে যদি প্রার্থীদের বয়স ২০২০ সালের ২৫ মার্চ সর্বোচ্চ বয়সসীমার মধ্যে থাকলে উপকৃত প্রার্থীরা আবেদন করার সুযোগ পাবেন।

সুতরা বলা যায় যাদের বয়স ২০২০ সালের ২৫ শে মার্চ শেষ হয়েছে তারা আগামী ২০২৩ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে আবেদন করতে পারবেন

পরিশেষে বলতে চাই সরকারি চাকরিজীবীপ্রত্যাশীদের এটা একটা বড় সুযোগ তাই আমাদের এই প্রত্যাশা এই সুযোগটা আমরা আপনারা কাজে লাগানোর চেষ্টা করি সবাই যেন‌বেকারত্ব থেকে মুক্তি পাই।

Leave a Reply