কলরব শিল্পী আবু রায়হান এর জীবনী | Abu Rayhan Kalarab Biography

You are currently viewing কলরব শিল্পী আবু রায়হান এর জীবনী | Abu Rayhan Kalarab Biography
Abu Rayhan Kalarab

Abu Rayhan Kalarab: আবু রায়হান কলরব শিল্পীগোষ্ঠীর অন্যতম একজন শিল্পী, কলরব একটি সংগীত ব্যান্ডের নাম। কলরবকে চিনেন না, জানেন না অথচ ইসলামি সংগীত পছন্দ করেন এমন কাউকে পাওয়া যাবে না। বাংলাদেশ জাতীয় শিশু. কিশোর সংস্কৃতিক ফোরামের অন্যতম শিল্পী আবু রায়হান। Abu Rayhan আবু রায়হান বাংলাদেশের জনপ্রিয় একজন সংগীত একজন শিল্পী। তিনি তার সুললিত কণ্ঠের মাধ্যমে সবার হৃদয়ে স্হান করে নিয়েছেন। তিনি বাংলাদেশের জাতীয় পর্যায়ে পদকপ্রাপ্ত শিল্পী।

আবু রায়হানের পরিচয় ও জন্ম।

আবু রায়হান কলরব। তাকে রায়হান নামে ডাকা হয়। তিনি ১8ই জানুয়ারী ১৯৯৩ রংপুরের ভদ্রপাড়া, কুরিগ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

Abu Rayhan Kalarab

আবু রায়হান নামের অর্থ।

Abu Rayhan meaning in Bengali: আবু রায়হান নামে অর্থ কি?  আনেকে জানতে চান।

আবু অর্থ পিতা। এটা আরবিতে মালিকানা অর্থে ব্যবহৃত হয়। আর “রায়হান” নামের অর্থ –  সুবাস, সুগন্ধ, সুরভি ।

সুতরাং “আবু রায়হান ” নামের এর অর্থ হচ্ছে : সুগন্ধি ফুলের পরিচর্যাকারি। অথবা সুগন্ধি ফুলওয়ালা।

আবু রায়হানের বাবা ও মা।

আবু রায়হান একটি সম্ভ্রন্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।  তার বাবার নাম মাওলানা ইয়াসির আলী। তার মার নাম জানা যায় নি।

আবু রায়হানের ভাইবোন।

আবু রায়হান তার পাঁচ ভাইবোনের মধ্যে চতুর্থ। তারা চার ভাই ও একবোন।

Abu Rayhan Kalarab Height and Weight

আবু রায়হানের শারীরিক গঠন।

  • উচ্চতা : ৫ ফুট ৭ ইঞ্চি।
  • ওজন : ৬৮ কেজি।
  • গায়ের রং: ফর্সা।
  • চুলের রংঃ কালো।

আবু রায়হান বর্তমান ঠিকানা।

আবু রায়হানের বর্তমানে রাজধানীর খিলগাওতে থাকেন।

আবু রায়হানের শিক্ষাজীবন।

  • আবু রায়হান জামেয়া শরইয়্যাহ মালিবাগ থেকে দাওরায়ে গাদিস সম্পন্ন করেছেন।
  • দারুন নাজাত সিদ্দিকিয়া কামিল মাদরাসা থেকে “কামিল” সম্পন্ন করেছেন।
  • BIU থেকে মাস্টার্স করেছেন।

আবু রায়হানের কর্মজীবন।

আবু রায়হান একজন সংগীত শিল্পী হিসাবে কাজ শুরু করেন। এটাকে পেশা হিসাবে গ্রহন করেন। তিনি একজন ইউটুবারও। সাথে সাথে তিনি ব্যবসার সাথে জড়িত আছেন। তার অন্য রকম ইসলামি সংগ্রামী ব্রান্ড রয়েছে। যাকে সবাই “তুহফা কালেকশন” নামে চিনে। তিনি বর্তমানে তুহফা কালেকশনের CEO হিসেবে আছেন। তাছাড়া তিনি কলরবের প্রধান সংগীত পরিচালক। তিনি কলরবের সাথে আছেন ২০০৪ থেকে।

Abu Rayhan Kalarab

আবু রায়হান যেভাবে সংগীতে আসলেন।

আবু রায়হানের জীবনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা।  আবু রায়হান কিছুদিন আগে একটি লাইভ সাক্ষাৎকারে আসেন। কথা বলেন নিজের জীবন বৃত্তান্ত নিয়ে। তুলে ধরেন জীবনের উথান পতনের চিত্র। কিভাবে তিনি একটি প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে কলরবে আসলেন সেটাও অকপটে শ্রেতার জানান।

কলরবের পরিচালক বদরুজ্জামানের প্রশ্নের জবাবে আবু রায়হান বলেন, তিনি ছোটবেলায় একটি প্রাইমারি স্কুলে পড়তেন। স্কুলে পড়ার সত্ত্বেও তিনি বেশভূষায় ছিলেন ব্যাতিক্রমী। তিনি পন্জাবী পায়জামা পড়তেন। তার এমন পোশাক চয়নে মূল প্রভাবক ছিল তাঁর পরিবার।  তিনি ইসলাম ঘেষা পরিবারে বেড়ে উঠেন।

আবু রায়হানের স্কুলে একজন ম্যাডাম ছিলেন। একদিন তিনি স্কুলে যান নি। স্কুলে একটি প্রেগ্রাম ছিল। ম্যাডাম তাকে ডেকে পাঠান। আবু রায়হান ইসলামি পোশাক পড়ে, হয়ত  সে হয়ত কেরাত গজল গাইতে পারে। তিনি স্কুলের সেই প্রতিযোগিতায় অংশ নেন আজান, গজল এবং কেরাতে। তিনটিতেই তিনি প্রথম,  পুরস্কারও তার দখলে আসল। তখন তার নামডাক এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে, সবাই তাকে মারহাবা,  মাশাআল্লাহ দিতে লাগল। ঘটনাটি ছিল ২০০৩।

এই ঘটনায় তার ভায়েরা বেশ অনুপ্রাণিত হলেন
তারা ভাবলেন আবু রায়হানের প্রতিভা আছে। তাকে দিয়ে একটা কিছু হবে। তারা তাকে উৎসাহ দিতে লাগলেন। শুধু তাই নয়, বেশ কয়েকটি গজলের ক্যাসেট কিনে দিলেন কলরবের। সেগুলো ছিল আইনুদ্দিন আল আজাদ ও মারুফ আল্লাম সহ আরো অনেকের।

তারপর তিনি মসজিদে,  এলাকায় বিভিন্ন প্রোগ্রামে গজল গাইতেন। সেহটির সময় গজল গাইতেন,  সবাই তাকে বাহ বাহ দিত।

আইনুদ্দিন আল আজাদের সাথে পরিচয়।

আবু রায়হান এভাবে মসজিদে মাহফিলে গজল গাইতেন।একদিন তাদের এলাকায় জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী মাওলানা আইনুদ্দিন আল আজাদ আসলেন। তার সাথে আসলেন কলরবে বেশ নামকরা অনেক শিল্পী। বড় কলসার্ট। মানুষ চতুর্দিক থেকে জড়ো হচ্ছিল।  সাথে বিশাল বৃষ্টি। আবু রায়হান সহ অন্যান্যরা বৃষ্টিতে ভিজে কংসার্টে যোগ দেন। সে সময় ছিল তার কাছে খুব আনন্দ মধুর।

আজাদ ভাই ছিলেন স্টেজের পিছনে বসা। বিশাল প্রোগ্রাম। আবু রায়হান ভয়ে ও শংকা নিয়ে তার কাছে গেলেন। তার ভাই তাকে আজাদ ভাইয়ের সাথপ পরিচয় করালেন। রায়হান ভাল গাইতে পারে,  তার গলা বেশ। আজাদ ভাই তাকে শুনতে চাইলেন। আবু গান শুনালেন। বীর মুসলমান ধর আল কুরআন। তিনি রায়হানের গান শুনে আবাক হলেন। এতটুকু ছেলে আর কি অসাধারণ কণ্ঠ। কি সুন্দর গায়। তিনি এই স্টেজে তাকে সংগীত গাইতে বললেন। মোটামুটি এভাবে তার কলরবে আসা। আর তাকে পিছনে তাকাতে হয়নি।

আবু রায়হানের ১ম এলবাম।

আবু রায়হানের সম্পর্কে অজানা তথ্য।

সবার কাছে তিনি ইসলামি সঙ্গিত শিল্পী হিসেবে পরিচিত। তিনবার রাষ্ট্রপতি পদক প্রাপ্ত।
তিনি ২০০৮ সাল থেকে ইসলামী সংগীত গাওয়া শুরু করেন।
তার প্রথম এলবাম

আবু রায়হানের পছন্দের তালিকা।

তার প্রিয় বাক্তিত্ব হয়রত মুহাম্মদ সা.।
প্রিয় জায়গা মক্কা মদিনা।

Abu Rayhan আবু রায়হানের পেশা।

আবু রায়হানের পেশা হলো একজন ইসলামিক স্কলার। তিনি শিল্পী।  তিনি তার কোমল কণ্ঠ দিয়ে সবার মাঝে স্হান করে নিয়েছে।

আবু রায়হানের মোবাইল নম্বর।

আবু রায়হানের মোবাইল নম্বর হলো
01744-376596

আবু রায়হানের বিয়ে।

আবু রায়হান বিয়ের পীড়িতে বসন ২৪ জুলাই ২০১৬ সালে। তার স্ত্রী এখনো পড়াশুনা করছেন। তিনি মাহিলা মাদরাসার ছাত্রী।  তার শ্বশুর মাওলানা গোলাম রাব্বানী।

আবু রায়হানের স্ত্রী।

স্ত্রীর নাম তুহফাতুন নুর রুকাইয়া

আবু রায়হানের খেতাব।

আবু রায়হানের খেতাব হলো সুরের পাখি। তার কন্ঠস্বরে এক অজানা ভাললাগা কাজ করে। কেমন যেননপাখির সুর মনে হয়। তাই তিনি সুরের পাখি হিসাবে পরিচিতি লাম করেছেন। এককথায় বললে তার খেতামব সুরের পাখি।

আবু রায়হানের অর্জন।

রাষ্ট্রপতি কর্তৃক স্বর্ণ পদক লাভ করেন।

আবু রায়হান এর ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, ইউটিউব, টুইটার পেইজ:

Abu Rayhan Kalarab Facebook official Page: Abu Rayhan Kalarab

Abu Rayhan Kalarab YouTube channel: Abu Rayhan

Abu Rayhan Kalarab Twitter: Abu Rayhan official

Abu Rayhan Instagram page: Abu Rayhan official

Leave a Reply