এনটিআরসিএ ৭০ হাজার শিক্ষক নিয়োগের গনবিজ্ঞপ্তি যেকোন সময়ে হতে পারে

  • Post author:
  • Post last modified:November 29, 2022
You are currently viewing এনটিআরসিএ ৭০ হাজার শিক্ষক নিয়োগের গনবিজ্ঞপ্তি যেকোন সময়ে  হতে পারে
এনটিআরসিএ ৭০ হাজার শিক্ষক নিয়োগের গনবিজ্ঞপ্তি যেকোন সময়ে হতে পারে

এনটিআরসিএ ৭০ হাজার শিক্ষক নিয়োগের গনবিজ্ঞপ্তি যেকোন সময়ে হতে পারে: এনটিআরসিএ এর ৭০ হাজার শিক্ষক নিয়োগের গনবিজ্ঞপ্তি যেকোন সময়ে হতে পারে এনটিআরসিএর আওতাভুক্ত বিভিন্ন বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শূন্য পদের তালিকা যাচাই বাছাই এর কাজ ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে ।তাই শিক্ষক নিয়োগ এর গনবিজ্ঞপ্তি যেকোন সময় জারি করতে পারে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ।

এনটিআরসিএ ৭০ হাজার শিক্ষক নিয়োগের গনবিজ্ঞপ্তি যেকোন সময়ে হতে পারে।

চতুর্থ গনবিজ্ঞপ্তি:

৭০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ এর গনবিজ্ঞপ্তি যেকোন সময়ে হতে পারে এবং এটি হবে চতুর্থ গনবিজ্ঞপ্তি।

  • বেসরকারি কারিগরি এবং স্কুল কলেজ মাদ্রাসা থেকে শূন্য পদের তালিকার যে আহ্বান করেছিল এনটিআরসিএ সে কাজটি অনলাইনের মাধ্যমে শেষ করেছে এবং এই শূন্য পদের তথ্য সঠিক আছে কিনা তা পর্যালোচনার দায়িত্বের জন্য তিনটি প্রতিষ্ঠানকে অনুরোধ করা হয়েছে।
  • মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর মাউশি বেসরকারি মাধ্যমিক স্কুল কলেজের শূন্য পদের তথ্য যাচাই কাজ করে।
  • মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তর এবং কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের শূন্য পদের তথ্য যাচাই এর কাজ করে।
  • একটি সূত্রে জানা যায়যে,তারা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে শূন্য পদের যে তালিকা পাওয়া গেছে ,তাতে বেশ কিছু ভূল রয়েছে,যেমন অনেক প্রতিষ্ঠানে বাংলা বিষয়ের শিক্ষক চাওয়া হয়েছে অথচ বাংলা বিষয়ের শিক্ষক অলরেডি আছেন আবার কোন কোন প্রতিষ্ঠানে তিনজন শিক্ষক প্রয়োজন আবেদন করেছেন পাঁচজন।আবার অনেক প্রতিষ্ঠানে পদ খালি নেই কিন্তু আবেদন করেছেন শিক্ষক চেয়ে।
  • এইসব বিষয়ের সমন্বয় সাধনের জন্য নিজ নিজ অধিদপ্তরকে তথ্য যাচাই এর কাজ করার জন্য বলা হয়েছে অনলাইনের তথ্য সংশোধনের জন্য।

১৭ তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা নতুন নিয়মে হচ্ছে

শূন্য পদের তথ্য যাচাই করেছে তিনটি প্রতিষ্ঠান:

  • তিন প্রতিষ্ঠান থেকে যাচাই করা শূন্য পদের তালিকা এনটিআরসিএতে পৌঁছেছে।
  • মাদ্রাসা অধিদপ্তরের শূন্য পদের তালিকা জানতে চাইলে বলা হয় মাদ্রাসা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ শামসুজ্জামান বলেন, এনটিআরসিএ আমাদের ৩৭ হাজার ৬৬৪ জন শিক্ষক নিয়োগ এর তথ্য পাঠিয়েছিল।যাচাই এর কাজ শেষে তথ্য মিল না থাকায় এবং অন্যান্য কারনে ১ হাজার ১০২ জনের নাম বাদ দেওয়া হয়েছে। নিয়োগের জন্য ৩৬ হাজার ৫৬২ জনের নামের তালিকা পাঠানো হয়েছে।
  • মাউশি শূন্য পদের তালিকা যাচাই এর কাজ শেষ করে এনটিআরসিএতে পাঠিয়েছে।
  • যাচাই বাছাই এর কাজ শেষ করে কতটি পদ ঠিক আছে জানতে চাইলে মাউশির এক কর্মকর্তা বলেন স্কুল কলেজ মিলে ৩২ হাজার ৫০০ পদ ঠিক আছে।এসবের তালিকা এনটিআরসিএতে পাঠানো হয়েছে।
  • কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর সূত্র জানায় এক হাজার পদের তালিকা তারা পেয়েছিল এবং এক হাজার পদ নির্দিষ্ট করে এনটিআরসিএতে পাঠানো ও হয়েছে।
  • স্কুল কলেজ কারিগরি প্রতিষ্ঠান এবং মাদ্রাসায় সব মিলে মোট ৭০ হাজার ৯৫ টি শূন্য পদের তথ্য পাওয়া গেছে। এনটিআরসিএর একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা জানান।
  • সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে এনটিআরসিএর চেয়ারম্যান মোঃ এনামুল কাদের খান জানান তিনি প্রতিষ্ঠান যাচাই বাছাই এর কাজ শেষ করার পর আমরা শূন্য পদের তথ্য পেয়েছি এগুলো আরো যাচাই বাছাই হতে পারে এবং গনবিজ্ঞপ্তি জারির অনুমতি চেয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে চিঠি পেলেই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রিয় নিবন্ধিত প্রার্থীরা এনটিআরসিএর গনবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ শীঘ্রই হোক এটাই কামনা করি । কেননা এই বিজ্ঞপ্তি এবং নিয়োগ হলে অনেকেই নিয়োগ প্রাপ্ত হবেন এবং বেকারত্ব দূর হবে ।তবে এবার এনটিআরসিএর এই চতুর্থ গনবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ এর আবেদন ফি একটু কমছে এই বিষয়গুলো অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ আমি তা শেয়ার করলাম।

অনলাইনে আবেদন ফি কমছে। চাকরিপ্রার্থীদের খরচ কমাতে এবার প্রথম অনলাইনে‌ প্রার্থীরা পছন্দের ৪০ টি‌‌ প্রতিষ্ঠান নির্বাচন করার সুযোগ পাচ্ছেন এবং এসব প্রতিষ্ঠানে সুযোগ না পেলে অন্য প্রতিষ্ঠানে চাকরির সুযোগ রাখা হচ্ছে।

  • আবেদন করার ক্ষেত্রে দুই দফায় টাকা নেওয়া হয়। একটি হচ্ছে সনদ পাওয়ার জন্য যার আবেদন ফি……৩৫০ টাকা। আরেকটি হচ্ছে পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে সনদ পাওয়ার পর পছন্দের প্রতিষ্ঠানে আবেদন এর জন্য।
  • এবার একজন প্রার্থী সনদ পাওয়ার পর সর্বোচ্চ ৪০ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আবেদন করতে পারবেন।আগের নিয়ম অনুযায়ী খরচ হয়ার কথা ছিল ৪ হাজার টাকা কিন্তু এবার ৪০ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আবেদন এর জন্য খরচ ১ হাজার টাকা।
  • এমনকি এবার এই ৪০ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়োগ না হলে মেধার ভিত্তিতে অন্য প্রতিষ্ঠানে নিয়োগ হলে চাকরি করবেন কিনা সেখানে প্রার্থী হ্যা বা‌ না বাছাই করতে পারবেন।
  • এবার ই এই প্রথম সুযোগ দেয়া হয়েছে যে,৪০ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়োগ না হলেও অন্য প্রতিষ্ঠানে সুযোগ রাখা হবে‌।
  • মন্ত্রনালয়ে সম্মতি পেলেই এসব নিয়ম কার্যকর করা হবে এই সিদ্ধান্ত কে সাধুবাদ জানিয়েছেন এনটিআরসিএ এর সুপারিশ পাওয়া শিক্ষকদের সংগঠন শিক্ষক ফোরাম।

এনটিআরসিএর চতুর্থ গনবিজ্ঞপ্তি শীঘ্রই হোক এবং নিবন্ধিত প্রার্থীরা সুযোগ পাক এই কামনা এনটিআরসিএ এর যাবতীয় তথ্য আমাদের ব্লগে দেওয়া হয়েছে আপনারা শেয়ার করবেন এবং আমরা ও নতুন তথ্য দিতে পারি যেন সবসময় এটাই কামনা করবেন

Leave a Reply