এক নজরে পদ্মা সেতু (খুঁটিনাটি বিস্তারিত)

You are currently viewing এক নজরে পদ্মা সেতু (খুঁটিনাটি বিস্তারিত)
পদ্মা সেতু

আজকে আমার টাকায় আমার সেতু, বাংলাদেশের পদ্মা সেতু শত বাধা পেরিয়ে, অবশেষে বাস্তবায়িত হল বাংলাদেশের সকল মানুষের স্বপ্নের পদ্মা সেতু! পদ্মা সেতু আমাদের অহঙ্কার, আমাদের গর্ব।

আজ ২৫ জুন বাংলাদেশের সকল মানুষের স্বপ্নের সেতু পদ্মা সেতু আজ উদ্বোধন করেছেন বাংলাদেশের সফল প্রধানমন্ত্রী মাননীয় শেখ হাসিনা। বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রীর অদম্য চেতনা এবং বিচক্ষণ নেতৃত্বই পদ্মা সেতুটি তৈরি হয়েছে । আসলেই পদ্মা সেতুর নির্মাণের পিছনে অনেক ষড়যন্তকারী ছিল এবং অনেকে বলেছে এটা করা যাবে না কিন্তু মহান আল্লাহ তায়ালা শেখ হাসিনার মাধ্যমে তা করিয়েছেন। পদ্মা নদী বিশ্বের সবচেয়ে বড় নদী আমাজনের পরে একটি শক্তিশালী নদী হল পদ্মা নদী এবং এই সেতুটি বাংলাদেশ সকল জাতির জন্য একটি প্রকৌশল বিস্ময়।

বাংলাদেশের পদ্মা সেতু দেশের সম্পদ এবং নিশ্চয়ই পদ্মা সেতু অনেক বড় একটি অর্জন বাঙালি জাতির জন্য। এটা আমার আপনার এই দেশের প্রতিটি নাগরিকের সম্পদ। ফেরিঘাটে যে কত শত ঘন্টা অপেক্ষার যন্ত্রণা সয়েছি এপার উপরের মানুষ তার কোনো হিসেব নেই। গর্ব কিংবা অহংকার নয়, আল্লাহর নিকট অসংখ্য শুকরিয়া জানাই। হে আল্লাহ, এ সেতুকে আপনি আমাদের জন্য টেকসই ও উপকারী করুন।

এক নজরে পদ্মা সেতু প্রকল্পের সব কিছু দেখে নিন

নির্মাণ কাজ শুরু৭ই ডিসেম্বর ২০১৪
মূল সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয়:মাওয়া প্রান্তে ৬ নম্বর পিলারের কাজ দিয়ে
নাম :পদ্মা সেতু
দৈর্ঘ্য :৬.১৫ কিলোমিটার
প্রস্ত :২১.৬৫ মিটার
মোট পিলারের সংখ্যা :৪২টি
স্প্যানের সংখ্যা : ৪১টি
প্রতিটি স্প্যানের দৈর্ঘ্য: ১৫০ মিটার
স্প্যানগুলোর মোট ওজন: ১,১৬,৩৮৮টন
পাইলের সংখ্যা:৬টি
পাইলের ব্যাস:৩টি
পাইলের সর্বোচ্চ দৈর্ঘ্য: ১২৮ মিটার
মোট পাইলের সংখ্যা: ২৬৪টি
জমি অধিগ্রহণ: ৯১৮ হেক্টর
ব্যবহৃত স্টিলের পরিমাণ: ১,৪৬,০০০ মেট্রিক টন
সক্ষমতা: দৈনিক ৭৫ হাজার যানবাহন
সেতুর উচ্চতা: ১৮ মিটার
পদ্মা সেতুর আকৃতি:ইংরেজি এস (S) অক্ষরের মতো
সেতুর আয়ুষ্কাল: ১০০ বছর
সেতুর মোট ব্যয়: ৩০,১৯৩.৩৯ কোটি
ভূমি অধিগ্রহণ: ২৬৯৮.৭৩ কোটি টাকা

পদ্মা সেতু নাম : পদ্মা সেতু
পদ্মা সেতুর দৈর্ঘ্য : ৬.১৫ কিলোমিটার
ভায়াডাক্ট (স্থলভাগে সেতুর অংশ) সহ দৈর্ঘ্য : ৯.৮৩ কিলোমিটার।
পদ্মা সেতুর প্রস্ত: ২১.৬৫ মিটার
পদ্মা সেতুর মোট পিলারের সংখ্যা: ৪২টি
পদ্মা সেতুর স্প্যানের সংখ্যা: ৪১টি
পদ্মা সেতুর প্রতিটি স্প্যানের দৈর্ঘ্য: ১৫০ মিটার
পদ্মা সেতুর স্প্যানগুলোর মোট ওজন: ১,১৬,৩৮৮টন

প্রতিটি পিলারে নিচে পাইলের সংখ্যা: ৬টি (কিছু কিছু পিলারে ৭টি পাইলও দেওয়া হয়েছে)
পাইলের ব্যাস: ৩ মিটার
পাইলের সর্বোচ্চ দৈর্ঘ্য: ১২৮ মিটার
মোট পাইলের সংখ্যা: ২৬৪টি ( ভায়াডাক্টের পিলারের পাইলসহ ২৯৪টি)
জমি অধিগ্রহণ: ৯১৮ হেক্টর
ব্যবহৃত স্টিলের পরিমাণ : ১,৪৬,০০০ মেট্রিক টন
নির্মাণ কাজ শুরু : ৭ই ডিসেম্বর ২০১৪
মূল সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু : মাওয়া প্রান্তে ৬ নম্বর পিলারের কাজ দিয়ে
সক্ষমতা : দৈনিক ৭৫ হাজার যানবাহন
পানির স্তর থেকে সেতুর উচ্চতা: ১৮ মিটার
পদ্মা সেতুর আকৃতি: ইংরেজি এস (S) অক্ষরের মতো
ভূমিকম্প সহনশীলতা : রিক্টার স্কেলে ৮ মাত্রার কম্পন
অ্যাপ্রোচ রোডের দৈর্ঘ্য: ১২ কিলোমিটার
নদীশাসন: ১৬.২১ কিলোমিটার
সেতুর আয়ুষ্কাল: ১০০ বছর
সেতুর মোট ব্যয়: ৩০,১৯৩.৩৯ কোটি
ঢাকার সঙ্গে সরাসরি সড়ক যোগাযোগ প্রতিষ্ঠিত হবে এমন জেলার সংখ্যা: ২১টি
সরাসরি উপকারভোগী মানুষের সংখ্যা: দক্ষিণপশ্চিমাঞ্চলের ৩ কোটি মানুষ

পদ্ম সেতুর নির্মাণে যেসব দেশের বিশেষজ্ঞ ও প্রকৌশলীরা কাজ করেছেন :

চীন, ভারত, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, জার্মানি, অট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, ন্যাদারল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, জাপান, ডেনমার্ক, ইতালি, মালয়েশিয়া, কলম্বিয়া, ফিলিপাইন, থাইওয়ান, নেপাল ও দক্ষিণ আফ্রিকা।

পদ্মা সেতুর প্রকল্পের অঙ্গ ভিত্তিক ব্যয় বিভাজন:

ক) মূল সেতুর ব্যয়: ৪০০ কেভি ট্রান্সমিশন লাইন টাওয়ার ও গ্যাস লাইনের ব্যয়সহ ১১,৯৩৮.৬৩ কোটি টাকা (বরাদ্দ ১২,১৩৩.৩৯ কোটি টাকার বিপরীতে)
খ) নদীশাসন কাজ: ৮,৭০৬.৯১ কোটি টাকা (৯,৪০০ কোটি টাকার বিপরীতে)
গ) অ্যাপ্রোচ রোড: ২টি টোল প্লাজা, ২টি থানা বিল্ডিং ও ৩টি সার্ভিস এরিয়াসহ ১৮৯৫.৫৫ কোটি টাকা (১৯০৭.৬৮ কোটি টাকার বিপরীতে )
ঘ) পুনর্বাসন ব্যয়: ১,১১৬.৭৬ কোটি টাকা (১,৫১৫ কোটি টাকার বিপরীতে)
ঙ) ভূমি অধিগ্রহণ: ২৬৯৮.৭৩ কোটি টাকা
চ) পরিবেশ: ২৬.৭২ কোটি (১২৯.০৩ কোটি টাকা)
ছ) অন্যান্য বেতন ভাতা, পরামর্শক, সেনা নিরাপত্তা ইত্যাদি: ১৩৪৮.৭৮ কোটি (২৪০৯.৫৬ কোটি টাকার বিপরীতে)

পদ্মা সেতুর প্রকল্পের মোট অনুমোদিত ব্যয়:

পদ্মা সেতুর মোট ব্যয় হয় ২৭,৭৩২.০৮ কোটি টাকা (৩০১৯৩.৩৯ কোটি টাকার বিপরীতে)

পদ্মা সেতু মোট ব্যয় হয়েছে?

সেতুর মোট ব্যয়: ৩০,১৯৩.৩৯ কোটি

পদ্মা সেতু হওয়ায় ঢাকার সঙ্গে যোগাযোগ প্রতিষ্ঠিত হবে?
ঢাকার সঙ্গে সরাসরি সড়ক যোগাযোগ প্রতিষ্ঠিত হবে এমন জেলার সংখ্যা ২১ট

Leave a Reply